বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের নৌকার মাঝি হতে চায় ইফতেখাইরুল ইসলাম সুমন))

18

আলমগীর হোসেন, কালিগঞ্জ (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি:
আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সাতক্ষীরা জেলা কালিগঞ্জ উপজেলার ২নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের নৌকার মাঝি হতে চান সরদার ইফতেখাইরুল ইসলাম সুমন।

আওয়ামী লীগ পরিবারের সস্তান বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি সাবেক যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ও বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইফতেখারুল ইসলাম সুমন নৌকার মনোনয়নের প্রত্যাশায় নির্বাচনীয় প্রচারনা চালাচ্ছে।২নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে ইফতেখারুল ইসলাম সুমন কে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় নির্বাচনী এলাকার সর্বস্তরের জনগন।স্থানীয় তরুণ প্রজন্মের নেতা-কর্মীদের সাথে আলাপের মাধ্যমে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। তিনি নির্বাচিত হলে জনগণ তাকে সব সময় কাছে পাবে এমন প্রত্যাশা। স্থানীয় লোকজন এমন একজন জনবান্ধব নেতাকেই ২নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়।
২নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন করার প্রত্যেয়ে এই এলাকার দলীয় তৃণমূল নেতা-কর্মী সহ সাধারণ মানুষ সুমনের মতো একজন গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি কে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়। স্থানীয়রা জানায়, এ ইউনিয়নটিতে রাজনীতিতে নানা পরিবর্তনের আভাস ফুটে উঠেছে। এ অবস্থায় এই ইউনিয়নটিকে সুসংগঠিত করতে ইফতেখারুল ইসলাম সুমন কে মনোনয়ন দেওয়া সঠিক সিদ্ধান্ত হবে মনে করেন তারা। ইউনিয়ন বাসীরা বলছেন, তাকে প্রার্থী করা হলে সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে নেমে নৌকার পক্ষে কাজ করবে।

মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে মনোনয়ন প্রত্যাশী ইফতেখারুল ইসলাম সুমন বলেন, আমি সব সময় মানুষের সুখে-দুঃখে আছি। যে কোনো দুর্যোগ দুর্বিপাকে মানুষের পাশে থেকে কাজ করব ইনশাআল্লাহ। এখন জনপ্রতিনিধি হিসেবে কাজ করার এবং ইউনিয়ন বাসি কে সেবা করার সুযোগ চাই। তিনি বলেন,জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকা প্রতীক দিলে জননেত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে ভূমিকা রাখব। দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী বলে জানিয়েছেন।
ইফতেখারুল ইসলাম সুমন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলার লক্ষ্যে জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্নপূরণে তিনি কাজ করে যাচ্ছেন। নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন লাভে সক্ষম হলে ২নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নকে মাদক, দূর্ণীতি, জুয়া, দারিদ্র্য মুক্ত ইউনিয়ন উপহার দেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

এ বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আর্দশে আদর্শিত হয়ে আওয়ামীলীগ করি। ইনশাআল্লাহ এলাকাবাসী চাইলে এবং দল আমাকে মনোনয়ন দিলে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে ইচ্ছুক। তবে এলাকাবাসীর পাশে এখনও আছি ভবিষতেও পাশে থাকব ইনশাআল্লাহ।

বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন বাসীরা জানান ইফতেখারুল ইসলাম সুমন একজন জনবান্ধব নেতা। করোনার কারণে আমরা অনেক পরিবার কর্মহীন হয়ে পরি। তিনি আমাদের পাশে থেকে আমাদের কে সব সময় সাহায্য সহযোগিতা করেছেন এবং কর্মহীন অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে অনেক খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন এবং সব সময় আমাদের খোঁজ খবর নিতেন।যে কোন সমস্যা নিয়ে আমরা তার নিকটে গিয়েছি তিনি আমাদের কে সাহায্য করেছেন।তারা আরও জানান অনেক গরিব মানুষের মেয়ের বিবাহের মধ্যে টাকা পয়সা দিয়েও সাহায্য করেন এবং অনেক অসুস্থ রোগীদের চিকিৎসার জন্য ও সাহায্য করে থাকেন। তারা বলেন দিনে রাতে, যে কোন বিপদে আপদে ডাকলে ইফতেখারুল ইসলাম সুমন আমাদের পাশে এসে হাজির হন।তাই আমরা ২নং বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণ ইফতেখারুল ইসলাম সুমন চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই।

ইফতেখারুল ইসলাম সুমন সাথে সাম্প্রতিক এক স্বাক্ষাৎকারে এসব কথা জানান,তিনি দীর্ঘদিন থেকে অত্র এলাকায় অনেক সময় নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী গরিব দুঃখী মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন। তিনি বলেন আমার মূল উদ্দেশ্য জনগনের সেবা করা।স্থানীয় এলাকাবাসীর অনেকেই বলেন, অত্যন্ত আস্থাভাজন ও তাদের সুখ-দুঃখের অংশীদার হিসেবে ইফতেখারুল ইসলাম সুমন কে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসাব দেখতে চাই।সাধারণ মানুষের মধ্যে তার যে জনপ্রিয়তা রয়েছে তাতে তাকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিলে তার বিজয়ী হওয়া প্রায় সুনিশ্চিত। ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ইফতেখারুল ইসলাম সুমন এলাকাবাসির উদ্দেশ্যে করে বলেন- আমি যদি মহান আল্লাহর রহমতে নির্বাচিত হই ও আমার দেয়া প্রতিশ্রুতি পালন করবই ইনশাআল্লাহ।

FacebookTwitterভাগাভাগি করুন

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •