চিলমারীতে রাণীগঞ্জ ইউনিয়নকে বাল্যবিবাহ মুক্ত ঘোষণা।

11

আকতার হাসান
কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নকে প্রাথমিকভাবে বাল্যবিবাহ মুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে সাড়ে ৩টা ইউনিয়নের খালেদা শওকত পাটওয়ারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এক অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা প্রদান করেন।
এসময় চিলমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন চিলমারী উপজেলা চেয়ারম্যান শওকত আলী সরকার বীরবিক্রম, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম লিচু, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আসমা বেগম, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সখিনা খাতুন, চিলমারী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) প্রাণকৃঞ্চ, ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল ইসলাম প্রমুখ। চিলমারী উপজেলা প্রশাসন, রাণীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ ও বেসরকারি সংস্থা আরডিআরএস বাংলাদেশ’র বিল্ডিং বেটার ফর গার্লস (বিবিএফজি) প্রজেক্ট যৌথভাবে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
উল্লেখ্য কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসন ও আরডিআরএস বাংলাদেশ’র বিবিএফজি প্রজেক্ট কুড়িগ্রাম জেলাকে বাল্যবিবাহ মুক্ত করতে সিডা ও প্লান ইন্টারন্যাশনাল’র আর্থিক ও কারিগরি সহযোগিতায় ২০১৭ সালে থেকে জেলার ৭৩টি ইউনিয়ন ও ৩টি পৌরসভায় সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। তারই আলোকে এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের গভর্ণেস ইনোভেশন ইউনিটের নির্দেশনা অনুযায়ী অগ্রগতি সাধিত হওয়ায় চিলমারী উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নকে প্রাথমিকভাবে বাল্যবিবাহ মুক্ত ঘোষণা করা হয়। এরপর আগামি তিন বছরের মধ্যে পর্যবেক্ষণ করে সূচকের উন্নতি হলে এই ইউনিয়নকে পূর্ণাঙ্গ বাল্যবিবাহ মুক্ত ঘোষণা করা হবে।
আরডিআসএস সূত্র জানায়, প্রাথমিকভাবে বাল্যবিবাহ মুক্ত ঘোষনা করতে পঞ্চাশভাগ পরিবর্তন আনা জরুরী। যেমন ১৯ বছরের নীচে মা হওয়ার রেট, শিক্ষাঙ্গণে ঝড়ে পরার রেট এবং জন্মনিবন্ধনের রেট পঞ্চাশভাগ কমিয়ে আনলে এই ঘোষণা দেয়।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •