কুড়িগ্রামে শিক্ষার্থী তুলি হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

16
Exif_JPEG_420

আকতার হাসান কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি :
কুড়িগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সিভিল টেকনোলজির ৭ম বর্ষের শিক্ষার্থী তানিয়া আক্তার তুলি (২১) হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে কুড়িগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট’র সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করা হয়।মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ইনস্টিটিউটের সিনিয়র রোভার সাইকেল সদস্য রাব্বি হাসান, সিনিয়র রোভার স্কাউট সদস্য ফারহানা তাবাসসুম, নিহত শিক্ষার্থীর বোন তাহমিনা, খালা মিনু আক্তার প্রমুখ। মানববন্ধনে অংশ নেয় কুড়িগ্রাম পলিকেটনিক ইনস্টিটিউটের সাধারণ শিক্ষার্থী, রোভার স্কাউট গ্রæপ, ব্লাড ডোনার ফাউন্ডেশনসহ ইনস্টিটিউটের একাধিক সংগঠন। বক্তারা বলেন, এটি একটি হত্যা। তানিয়া আক্তার তুলির বন্ধু আবু রায়হান সোহাগ তাকে হত্যা করেছে। সরকারের কাছে আমাদের দাবি অবিলম্বে খুনিকে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক। উল্লেখ্য গত ৩০ সেপ্টেম্বর জেলার রাজারহাট উপজেলায় ঘুরতে যান ওই প্রেমিক যুগল। পরে রাজারহাট থেকে কুড়িগ্রাম শহরে ফেরার পথে টগরাইহাট নামক এলাকায় একটি ব্রীজের ওপর ওই তরুণীকে মিশুক থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে পালিয়ে যায় প্রেমিক। এসময় মাথায় প্রচন্ড আঘাত প্রাপ্ত তুলিকে স্থানীয়রা প্রথমে কুড়িগ্রাম হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে পরিারের সদস্যরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। এখানে টানা ৭দিন চিকিৎসার পর মৃত্যু হয় তুলির। নিহত তুলি কুড়িগ্রাম পৌরসভা এলাকার পাঠানপাড়া এলাকার তৈয়ব আলীর মেয়ে। অভিযুক্ত প্রেমিক সোহাগ একই এলাকার আব্দুল হাকিমের ছেলে। এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে সোহাগ পলাতক রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •