আজ মহাসপ্তমীতে করোনায় সামাজিক দূরত্ব মেনে চলছে দুর্গোৎসব

7

টি.এম.মুনছুর হেলাল
স্টাফ রিপোর্টারঃ

আজ মহাসপ্তমী করোনা আবহের মধ্যেও সামাজিক দূরত্ব মেনে বাঙালীর শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গা পুজোর আনন্দে মেতে উঠেছে সকলেই। বাড়ির পুজো থেকে শুরু করে সার্বজনীন, ঢাকের আওয়াজে, আলোর রোশনাইয়ে সেজে উঠেছে গোটা পূর্ব ও পশ্চিম বাংলা।

তিথি- এবছর মহাসপ্তমী তিথি শুরু হচ্ছে বাংলা ২৪ শে আশ্বিন ইংরেজি ১১ ই অক্টোবর সোমবার রাত ১১ টা বেজে ৫২ মিনিটে। তিথি চলবে বাংলা ২৫ শে আশ্বিন ইংরেজি ১২ ই অক্টোবর মঙ্গলবার রাত ৯ টা বেজে ৪৮ মিনিট পর্যন্ত।

পুরাণ অনুযায়ী কৃষি প্রধান শস্য শ্যামলা বঙ্গ সমাজে শস্যদায়িনী ধরণী মাতার পুজোকে নব পত্রিকার পুজো বলা হয়। এই নব পত্রিকাই ‘কলাবউ’ নামে পরিচিত। ধারণা করা হয়, নবদূর্গার নয়টি রূপ অনুযায়ী নয়টি গাছের অংশ দিয়ে তৈরি হয় নবপত্রিকা।

এই বিশেষ নয়টি গাছ হল- কলা গাছ, কচু গাছ, হলুদ গাছ, মান গাছ, জয়ন্তী গাছ, বেল গাছ, ডালিম গাছ, অশোক গাছ এবং ধান গাছ।

মহা সপ্তমী তিথিতে নবপত্রিকার স্থান করানো অত্যন্ত শুভ বলে মনে করা হয়। কোন পতিত জলাশয় বা পুকুর গঙ্গায় নবপত্রিকায় স্নান যাত্রা সম্পন্ন করা হয়। নবপত্রিকা স্নানের জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণগুলি হল- তেল, হলুদ, পঞ্চরত্নের জল, পঞ্চশস্য, শিশির, পঞ্চ অমৃত, অষ্টকলস, পঞ্চ গব্য, পঞ্চ কষায়, সমুদ্রের জল, তীর্থের জল, আখের রস, ডাবের জল, বরাহদন্ত মৃত্তিকা, সর্বঔষধি, চতুষ্পদ মৃত্তিকা, পদ্মারেণু মহাঔষধি, চন্দন। সমস্ত উপকরণ সহযোগে স্নান যাত্রা সম্পন্ন করার পর নবপত্রিকাকে সিদ্ধিদাতা গণেশের পাশে অধিষ্ঠিত করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •