মাহফিলে ওয়াজ গ্রহণযোগ্য না হওয়ায় বক্তার জিহ্বা কাটার অভিযোগে আটক-৪

46

সোহেল সরকার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতাঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ইসলামিক বক্তার জিহ্বা কেটে হত্যা চেষ্টা আলোচিত চাঞ্চল্যকর

মামলায় চারজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৯।

বুধবার (৮ মার্চ) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৈরতলা বাস স্ট্যান্ড সংলগ্ন র‌্যাব-৯ এর অস্থায়ী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, জাকির হোসেন জাক্কু (৪৮), মাহবুবুল আলম শিমুল (৩৩), সুমন (৩৫) ও মো. আমিরুল ইসলাম রিমন (২০)।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে র‍্যাব-৯ এর অধিনায়ক উইং কমান্ডার মুমিনুল হক বলেন, গত ৫ মার্চ রবিবার রাত সোয়া ১২টার দিকে মাওলানা মুফতি শরীফুল ইসলাম নূরী বিজয়নগরের দৌলতবাড়ি দরবার শরীফের মাহফিল শেষ করে তার পরিচিত একজনসহ মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে আখাউড়া উত্তর ইউনিয়নের রামধননগর রেল ক্রসিং এর উত্তর পাশে ফাঁকা রাস্তায় পৌছামাত্র অজ্ঞাতনামা কয়েকজন তার উপর অতর্কিত হামলা শুরু করেন। এসময় তার জিহ্বা কেটে ফেলা হয়।

এ ঘটনায় আহতের চাচা মোঃ আব্দুল বাছির ভূঁইয়া (৫৫) বাদী হয়ে এজহার নামীয় দুইজনসহ অজ্ঞাত নামা ৫ থেকে ৭ জনের বিরুদ্ধে আখাউড়া থানায় মামলা দায়ের করেন।

ঘটনাটি মিডিয়ার মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনার ঝড় তোলে। এরই প্রেক্ষিতে আসামিদের আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-৯ ছায়া তদন্ত শুরু করে,ছায়া তদন্তের এক পর্যায়ে র‌্যাব গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ও তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় র‌্যাবের একাধিক আভিযানিক দল ৭ মার্চ হত্যা চেষ্টার সাথে জড়িত ১ জন এজহারভুক্ত আসামিসহ চারজনকে আটক করেছে।

আসামিদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জিহ্বা কাঁটার ঘটনা সম্পর্কে জানা যায়, ইসলামী বক্তা মাওলানা শরীফুল ইসলাম নূরীর দৌলত বাড়ি মাহফিলে বক্তব্যের কিছু অংশ আসামিদের কাছে গ্রহণযোগ্য মনে হয় নাই এবং সেই বক্তব্যে তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে বক্তার উপর অতর্কিত হামলা করে।