রাজাপুরে ২ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যায়ের রাস্তা তৈরি হচ্ছে নিম্মমানের ইট দিয়ে

10

মো. নাঈম হাসান ঈমন, ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার গালুয়া ইউনিয়নে সড়ক সংস্কার কাজে নিম্মমানের ইট ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। ঠিকাদারের কাজে ক্ষোভ জানিয়েছে স্থানীয়রা। সরেজমিন ঘুরে ঘটনার সতত্যও মিলেছে। 

গালুয়া বাজার থেকে খায়েরহাট এবং চাড়াখালী বাজার যেতে তিন কিলোমিটার দৈর্ঘ এবং ৩.৭ মিটার প্রস্থ্যের এই সড়কটি সংস্কারের জন্য টেন্ডার আহব্বান করেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। টেন্ডার প্রকৃয়া শেষে ২ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যায়ের এই সড়কটির কাজ পান পিরোজপুরের মেসার্স ঐশি এন্টারপ্রাইজ। ঐ প্রতিষ্ঠানের সত্বাধিকারী মো. সেলিম হেসেন কাজটি বিক্রি করেদেন গালুয়া এলাকার মো. কবির হোসেনের কাছে।

গনমাধ্যমে নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘একই ইউনিয়নের হাজি ব্রিকস থেকে কম দামে নিন্মমানের ইট এনে তা দিয়ে সড়ক সংস্কার করা হচ্ছে।’ এই সড়ক অল্প দিনের মধ্যেই আবার ভেঙে যাবে বলেও মন্তব্য করেছেন স্থানীয়রা। 

তবে এ কাজের বর্তমান ঠিকাদার কবির হোসেন তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, ‘আমি ১নম্বর ইট দিয়ে কাজ করাচ্ছি।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) রাজাপুর উপজেলার দায়িত্বরত প্রকৌশলীর সরকারী মোবাইল ফোন নম্বরটি বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বন্ধ পাওয়া যায়। তাকে তার ব্যবহৃত ইমো একাউন্টে ক্ষুদে বার্তা পাঠানো হলে অপর পাশ থেকে সাড়া মেলেনি। 

সড়ক সংস্কারে নিম্মমানের ইট ব্যবহারের বিষয়টি মুঠোফোনে জানানো হয় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) ঝালকাঠির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শহিদুল ইসলাম সরকার’কে। 

তিনি বলেন, ‘বিষয়টি আমি আজই জেনেছি, ঐ কাজের সংস্লিষ্ট ঠিকাদার এবং রাজাপুর থানা ইঞ্জিনিয়ারকে অভিযোগ সংক্রান্ত বিষয়ে আমি জিজ্ঞাসাবাদ করবো। এবং অভিযোগের সত্যতা পেলে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।