তাবলিগ জামাতের শৃঙ্খলা বদ্ধ অবস্থা সারা পৃথিবীর কাছে একটা মডেল – সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী

8

শেখ রাজীব হাসান –

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গণশিক্ষা প্রসার ও গ্রন্থাগার মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশের ইসলামকে বিশ্ব দরবারে সুপ্রষ্ঠিত করার লক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ব ইজতেমা ময়দানের জমি বরাদ্দ দিয়েছেন। এখন এটাকে সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে তার কন্যা দেশনেত্রী শেখ হাসিনা ওলামায়ে কেরামদের সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করছেন।

তবে মাঠটি কে সঠিকভাবে সংরক্ষণ করার জন্য সীমানা নির্ধারণ করে প্রাচীর দেওয়া উচিৎ। যে স্থানে জবর দখলের ভয় বেশী সেখানে গার্ড ওয়াল দিয়ে চিহ্নিত করন করুন। কারণ এই বিশ্ব ইজতেমা পৃথিবীর দৃষ্টি আকর্ষিত হয়েছে। তাবলিগ জামাতের নামে এত বড় মুসলিম সমাবেশ পৃথিবীতে হারামাইন শরীফাইন ছাড়া আর কোথাও অনুষ্ঠিত হয় না। এই কৃতিত্ব যেমন তাবলিগ জামাতের, তেমন বাংলাদেশ সরকারেরও। 

সোমবার দুপুরে রাজধানীর উত্তরার ১৪নং সেক্টর এলাকায় ইজতেমার সার্বিক বিষয়ে নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন তিনি। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা ১৮ আসনের সাংসদ হাবিব হাসান এমপি, তাবলিগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বি নাদিম হাসান,জমিয়াতে ওলামায়ে ইসলামের সহ-সভাপতি মাওলানা ওবায়দুল্লাহ ফারুক, মাওলানা আঃ কুদ্দুস, মাওলানা বাহাউদ্দিন জাকারিয়া, মাওলানা তোফাজ্জল হক আজিজ, মাওলানা নাজমুল হোসেন, মাওলানা লোকমান মাজাহারী, মুফতি জাকির হোসাইন কাসেমী, মাওলানা জয়নাল আবেদীন, মুফতি মাসউদুল করিম, মাওলানা মতিউর রহমান গাজীপুরী, মাওলানা জাবের কাসেমী ও মিডিয়া সমন্বয়ক মুফতি জহির ইবনে মুসলিম প্রমুখ।

তিনি আরো বলেন, তাবলিগ জামাতের শৃঙ্খলাবদ্ধ অবস্থা সারা পৃথিবীর কাছে একটা মডেল। কেউ স্বীকার করেন বা নাকরেন। এটা স্বতন্ত্র ইসলাম ধর্মের শিক্ষা বুজুর্গণের নীতি ও আদর্শ হলো তাদের পাথেয়, সে ভিত্তিতে তারা যতেষ্ট দায়িত্বপরায়ন।