বশেমুরবিপ্রবিতে ‘টু মিনিটস বায়ো-টক’ প্রতিযোগিতা

46

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আয়োজনে নেটওয়ার্ক অব ইয়ং বায়োটেকনোলজিস্ট অব বাংলাদেশ (এনওয়াইবিবি) আয়োজনে ‘টু মিনিটস বায়ো-টক’ অনুষ্ঠিত হয়েছে৷

বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে নেটওয়ার্ক অফ ইয়ং বায়োটেকনোলজিস্টস অফ বাংলাদেশ (এনওয়াইবিবি) এর বশেমুরবিপ্রবি স্টুডেন্টস চ্যাপ্টার কর্তৃক প্রতিযোগিতাটি আয়োজিত হয়। 

গত বুধবার (৩০ নভেম্বর) বশেমুরবিপ্রবির বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে আয়োজিত হয়েছে ‘টু মিনিটস বায়ো-টক’ শীর্ষক সাইন্টিফিক প্রেজেন্টেশন প্রতিযোগিতার তৃতীয় এপিসোড। এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন বিজিই বিভাগের একদল উদ্যমী শিক্ষার্থী। অনুষ্ঠানটিতে বশেমুরবিপ্রবির বিজিই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও সভাপতি মোঃ শাহাবউদ্দিন এর সভাপতিত্ত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজিই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মুশতাক ইবনে আয়ুব। এছাড়াও বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিজিই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আবদুল্লাহ আল-জোবায়ের, প্রভাষক ইমদাদুল হক সোহাগ ও রিজওয়ান মাহমুদ।

প্রতিযোগিতাটিতে চ্যাম্পিয়ন হয় অয়ন বালা (বিজিই ২য় বর্ষ), ১ম রানার্সআপ কাজী ইফতি আরাফাত (৪র্থ বর্ষ), ২য় রানার্সআপ অনন্যা চন্দ (২য় বর্ষ)। বিজয়ীদের মাঝে সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট বিতরণ করেন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ। 

এনওয়াইবিবি বাংলাদেশের বায়োটেকনোলজি বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এটি একটি বৃহৎ প্লাটফর্ম। বায়োটেকনোলজি সেক্টর এর সকল শিক্ষার্থী ও প্রফেসনালসদের একত্রিত করার লক্ষে এনওয়াইবিবি যাত্রা শুরু করে। এটি বর্তমানে ৩৫ টি ভিন্ন ভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৫৪০০ বায়োটেকনোলজি উচ্চাকাঙ্খীদের সম্মিলিত প্লাটফর্ম।

আয়োজকদের মধ্যে থেকে মোঃ ফাহিম ইসরাক বলেন, এনওয়াইবিবি বাংলাদেশের বায়োটেকনোলজি বিভাগের সকলকে এক ছাতার নিচে আনার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। এলক্ষে এনওয়াইবিবি প্রতি বছর আয়োজন করে চলেছে বিভিন্ন সাইন্টিফিক প্রতিযোগিতা, ক্যারিয়ার ফেস্ট ও স্কিল ডেভলপমেন্ট ওয়ার্কশপ ইত্যাদি। দেশের প্রথম বায়োটেকনোলজি জার্নাল ক্লাবের পথচলাও এনওয়াইবিবি এর হাত ধরে। বশেমুরবিপ্রবি বিজিই বিভাগে  ‘টু মিনিটস বায়ো-টক’ এপিসোড-৩ আয়োজনের জন্য আমরা আমদের বিভাগ ও শিক্ষকদের সর্বাত্মক সহযোগী পেয়েছি, ফলশ্রুতিতে আমরা সুন্দরভাবে প্রতিযোগিতাটির আয়োজন করতে পেরেছি।

এছাড়াও আয়োজনের পেছনে যাদের কথা না বললেই না তারা হলেন এনওয়াইবিবি বশেমুরবিপ্রবি স্টুডেন্ট মেম্বার শাফি মাহমুদ পিয়াল, নাজমুন নাহার, জান্নাতুল মাওয়া, সাজিদুর রহমান, ফারজানা প্রিমু, তাহেরাতুন নূর, রাশেদুজ্জামান।