অ্যাপস্ ব্যবহার করে মোবাইলের আইএমইআই পরিবর্তন করে তারা!

13

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা

রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকার আল্লাহ্ করিম মসজিদ মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করে অবৈধভাবে মোবাইল ফোনের আইএমইআই (ওগঊও) পরিবর্তনের সরঞ্জামাদি, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ডিভাইস উদ্ধারসহ এর সাথে জড়িত ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-২।

গতকাল রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকার আল্লাহ্ করিম মোবাইল মার্কেট থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন,মো. সোহেল খান (৩৩),মো. ইমরান হোসেন ইমু (২৮) ও মো. রাজিব শেখ (৩৪)। এসময় তাদের কাছ থেকে ইউএসবি ফ্লাসিং ডিভাইস ৫টি,পিসি ,১টি,মনিটর ১টি,এইচপি ল্যাপটপ ও ক্যাবল ১টি,এসএসডি ড্রাইভ ১টি, বিশেষ ক্যাবল ৪টি, ৯ টি মোবাইল সহ ২৫,৭৯৫/- টাকা উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার ২৪ নভেম্বর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান র‍্যাব-২ এর সিনিঃ এএসপি,সিনিঃ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. ফজলুল হক।

র‍্যাব জানান, সাম্প্রতিককালে রাজধানী ঢাকায় মোবাইল ছিনতাই এর পরিমান বৃদ্ধি পায়। এক ধরণের অসাধু প্রতারকচক্র দীর্ঘদিন যাবৎ কম্পিউটারের সাহায্যে অবৈধভাবে চোরাই মোবাইল ফোনের আইএমইআই পরিবর্তন করে আসছে। উক্ত চোরাই মোবাইল ফোন আইএমইআই পরিবর্তন করে বিভিন্ন পন্থায় বিক্রি করে। বর্ণিত অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্যে র‌্যাব-২ মোহাম্মদপুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

তিনি জানান, র‌্যাব-২ এর আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকার আল্লাহ্ করিম মোবাইল মার্কেটের খান টেলিকম এন্ড মোবাইল সার্ভিসিং নামক দোকানে দীর্ঘদিন যাবত এক অসাধু প্রতারকচক্র কম্পিউটারের সাহায্যে অবৈধভাবে চোরাই মোবাইল ফোনের আইএমইআই পরিবর্তন করে আসছে।

প্রাথমিক অনুসন্ধান ও গ্রেফতারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, আটক হওয়া এই তিন ব্যক্তি ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা চোরাই মোবাইল ফোনের আইএমইআই নম্বর পরিবর্তন করাসহ চোরাই মোবাইল ফোন কেনাবেচা করে। তারা বিশেষ ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস এবং অ্যাপস্ ব্যবহার করে যেকোনো মোবাইল ফোনের আইএমইআই (ওগঊও) নম্বর পরিবর্তন করতে পারে। এই কারণে চোরাই মোবাইল ফোন উদ্ধারসহ অপরাধীদের গ্রেফতার করা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর জন্য কঠিন হয়ে পড়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের দেয়া তথ্য যাচাই-বাছাইয়ের ভিত্তিতে এই চক্রের সাথে জড়িত অন্যান্য সদস্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

গ্রেফতারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।