বেতাগীতে দুর্যোগে কাজে আসছে না উচ্চ ক্ষমতার সাইরেন

16

মোঃ খাইরুল ইসলাম মুন্না,বেতাগী বরগুনা প্রতিনিধিঃ

দেশের উপকূলীয় জনপদ বরগুনার বেতাগীতে দুর্যোগকালীন মহাবিপদ সংকেত বাজিয়ে মানুষকে সতর্কবাতা প্রচারের উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন পলিফোনিক সাইরেনটি ঘূর্ণিঝড়ের সময় কোন কাজে আসছে না উপজেলা বাসীর।

৯ বছর ধরে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের সাথে স্থাপতি এটি অযন্ত্র, অবহেলা অবস্থায় পরে রয়েছে।

জানা গেছে, ২০০৭ সালের সুপার সাইক্লোন সিডরে এখানে মানুষের প্রাণ হানির পর সরকার ঘুর্ণিঝড়ের ছোবল থেকে মানুষকে বাঁচাতে এবং মহাবিপদ সংকেতের প্রচারের জন্য ২০১৩ সালে দুর্যোগ ও ত্রাণমন্ত্রণালয় তৎকালীণ উপজেলা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ের সাথে সেখান থেকে কার্যালয় স্থানান্তরের পর বর্তমানে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের সাথে একটি স্টীলের খুটিতে ৬টি ছোট মাইক সম্বলিত উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন পলিফোনিক সাইরেন স্থাপন করেন।

সাইরেনটির আওয়াজ ৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত পৌছাতে সক্ষম।

কেবলমাত্র  ৮নং মহাবিপদ সংকেত দেখা দিলে এই সাইরেনটি বাজিয়ে মানুষকে নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেওয়ার জন্য বাজানোর কথা।

কিন্ত  দূর্যোগ কালীন সময়ে এই সাইরেনটি এখন নিজেই অক্ষমতার রোগে আক্রান্ত হয়ে পরে থাকায় কোন কাজে আসছেনা। 

চলতি বছরের সদ্য আঘাত হানা ঘূর্নিঝড় সিত্রাং সময় মানুষ আতঙ্কে ভোগে এ উপকূল জুরে। সংবাদ মাধ্যম এবং সরকারী ভাবে সিত্রাং সুপার সাইক্লোন সিডরের চেয়েও ভয়াবহ আকার ধারন করতে পারে এমন আশঙ্কার মাঝেও কোন কাজে আসেনি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন এই সাইরেনটি। চলতি নভেম্বর মাসেও বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুইটি লঘুচাপ ঘুর্ণিঝড়ে রুপ নিয়ে ব্যাপক আঘাত হানতে পারে বলে গত ১ নভেম্বর পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আবহাওয়ার এ পূর্বাভাস উপজেলাবাসীর মাঝে আবারো উৎকন্ঠা ও আতঙ্ক বাড়িয়ে দিয়েছে।   

দুর্যোগকালীন এখানকার পলিফোনিক এই সাইরেনটি খুবই জরুরী বলে মনে করেন  উপজেলা যুব রেড ক্রিসেন্টের আহবায়ক শিফা বিশ্বাস।

৮নং মহা বিপদ সংকেত প্রচারে এবং মানুষের নিকট সাইরেনের শব্দ পৌঁছাতে এই পলিফোনিক উচ্চ ক্ষমতার সাইরেনটির অতি প্রয়োজনীয় বলে দাবি করেন উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থপনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাকসুদুর রহমান সহ উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থপনা কমিটির সদস্যরা।  

বেতাগী উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থপনা কমিটির সদস্য সচিব ও  প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. জিএম ওলিউল ইসলাম বলেন, উচ্চ ক্ষমতার এই সাইরেনটি বাজিয়ে মানুষকে ৮নং মাহাবিপদ সংকেত প্রচারের জন্য বসানো হয়েছিল। এটির ক্ষমতা ৩ বর্গকিলোমিটার। বর্তমানে সাইরেনটি অকেজো। 

বেতাগী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সুহৃদ সালেহীন বলেন, উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন পলিফোনিক সাইরেনটির বিষয় আমার ধারনা নেই।

তবে এটি অকেজো হয়ে থাকলে সাইরেনটি সারানোর উদ্যোগ নেওয়া হবে।

যাতে দুর্যোগকালীন সময় মহাবিপদ সংকেত বাজিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের সতর্কবাতা করা যায়।