চন্দনাইশে হত্যাচেষ্টা মামলায় আপন ৩ ভাই গ্রেফতার

4

ইসমাইল ইমন চট্টগ্রাম প্রতিনিধি।

বেআইনি প্রবেশ, মারধর, হত্যা চেষ্টাসহ প্রায় ৪ লক্ষ টাকা অর্থ লোপাটের একটি মামলায় ৩ ভাইকে গত মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) কারাগারে পাঠিয়েছেন চট্টগ্রামের বিজ্ঞ আদালত।  

গত ১২ আগষ্ট ২০২২ রাত আনুমানিক ১০ টা ৪৫ মিনিটের সময় চট্টগ্রাম জেলার চন্দনাইশ উপজেলার বৈলতলীর ৯ নং ওয়ার্ড, জাফরাবাদ,নইশ্যার বাড়ির .বাদী রওশন আরা বেগম (৪০) এর স্বামী রেজাউল করিম টিপুর দোকান দখলের উদ্দেশ্য একই উপজেলার ৮ নং ওয়ার্ডের

মৃত আবছার মিয়ার ৩ ছেলে মামলায় প্রধান আসামী ১/মোঃ ইদ্রিস (৪০),২/মোঃ ইউনুছ (৪৪), ৩/ মোঃ ইউসুফ (৪২) সংঘবদ্ধভাবে ধারাল অস্ত্রসহকারে হামলা চালায় বলে বাদী অভিযোগ করেন।

বাদী রওশন আরা বেগম আরো বলেন, তার স্বামী রেজাউল করিম টিপু একটি কাঠের দোকান চালিয়ে পরিবার চালায়, সেই দোকানটি মামলার প্রধান ৩ আসামীরা ছেড়ে দিতে দীর্ঘদিন যাবত নানাভাবে চাপ দিয়ে আসছিল। এতে বাদীর স্বামী চন্দনাইশ থানায় নিজের নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন,এতে তারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বাদীর স্বামী গত ১২ আগষ্ট রাতে দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরার সময় তাকে প্রধান ৩ আসামীরাসহ তাদের সাহযোগীরা ধারাল অস্ত্র দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্য মাথায় এলোপাথাড়ি কোপদেয় এবং রড, দেশিয় অস্ত্রশস্ত্রসহ নানান জিনিস দিয়ে উপূর্যপুরী হামলাচালায় এক পর্যায়ে বাদী ঘটনাস্থলে আসলে তাকেও মারাত্মক ভাবে হামলা করা হয় এবং সেই সাথে তাদের দোকানসহ ঘরেও হামলা ও লুটপাট করা হয়।

মামলারকারী আসামীরা হলেন,চন্দনাইশ উপজেলার, জাফরাবাদ, ৮ নং ওয়ার্ডের

মৃত আবছার মিয়ার ৩ ছেলে

১/মোঃ ইদ্রিস (৪০),২/মোঃ ইউনুছ (৪৪),৩/ মোঃ ইউসুফ (৪২)সহ ৪/ফয়েজ আহমেদ (৪৮),৫/মোজাম্মেল (৪০),৬/ মোঃ সৈকত (২০),৭/ মোঃ আরিফ (২৮)

,৮/ সেকান্দর আলম চৌধুরী (৪৫), ৯/ ফেরদৌস আক্তার (৪০), ১০/ রাবেয়া আক্তার (৫০)।

তথ্যমতে, মামলাটির প্রধান আসামী মোঃ ইদ্রিস (৪০) ধোপাছড়ি ইউনিয়নের চন্দনাইশ থানার অন্তর্গত চিড়িংঘাটা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। তবে তিনিসহ তার ভাইয়েরা এলাকায় বেপরোয়া চলাফেরা, চুক্তিতে ভূমি দখল সহ নানা কারনে বিতর্কিত। এছাড়াও ইয়াবা বিক্রির মামলায়ও জড়িত রয়েছে তাদের নাম।