গুলি করে জেএসএস সমর্থককে হত্যা

32

নিজস্ব প্রতিবেদক,খাগড়াছড়ি:: পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলাধীন দুর্গম ভারত সীমান্তবর্তী নাড়াইছড়িতে দর্পণ চাকমাকে (৩২) নামে এক পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি জেএসএস (সন্তু লারমা) সমর্থককে গুলি করে হত্যা করেছে স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২) সকালে নাড়াইছড়ি বাজার থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে মাইনী নদীর পাড়ে তাকে গুলি করে হত্যা করে বলে জানা যায়।

এ হত্যাকাণ্ডের জন্য ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপডিএফ) প্রসীত খীসা গ্রুপকে দায়ী করছে (সন্তু লারমা) জেএসএস। তবে তা অস্বীকার করে ইউপিডিএফ এর পক্ষ থেকে জেএসএসের দুটি পক্ষের অভ্যন্তরীণ কোন্দলকে এ হত্যাকাণ্ডের জন্য দায়ী করেছে ইউপিডিএফ বলেন,নাড়াইছড়ি এলাকায় ইউপিডিএফের সাংগঠনিক কোনো কার্যক্রম নেই।

দর্পণ চাকমা হত্যাকাণ্ডের ইউপিডিএফের সম্পৃক্ততা নয় জানিয়ে সংগঠনটি জেএসএস (সন্তু লারমা) পক্ষের দুই পক্ষের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে দর্পণ চাকমা মারা গেছে দাবী করেন। এদিকে জেএসসের (সন্তু লারমা) পক্ষ থেকে ‘নিহত দর্পণ চাকমা তাদের সংগঠনের সমর্থক জানালেও নিহতের বাড়ি কোথায় তা নিশ্চিত করতে পারেনি সংগঠনটি।

ঘটনার বিষয়ে দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কে এম পেয়ার আহমেদ বলেন, ‘নাড়াইছড়ি এলাকায় একজনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে বলে শুনেছি। তবে বিস্তারিত কিছু জানা সম্ভব হয়নি।

একাধিক সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে দর্পণ চাকমা (৫ নম্বর) বাবুছড়া ইউনিয়নের ভারত সীমান্তবর্তী নাড়াইছড়ি বাজারে দোকানে বসে থাকা অবস্থায় ৮-১০ জনের একটি সশস্ত্র গ্রুপ দোকান থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে মাইনী নদীর পাড়ে গুলি করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।