জয়পুরহাটে স্বামী হত্যা মামলায় স্ত্রী সহ তিন জনের মৃত্যুদণ্ড

22

এস কে মুকুল, জেলা প্রতিনিধিঃ

জয়পুরহাটে পরকিয়ার জেরে স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রীসহ ৩ জনকে মৃত্যুদ্বন্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জয়পুরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নুর ইসলাম আদালতে এ রায় প্রদান করেন।

দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার শালগ্রামের মৃত শহিদুল ইসলামের ছেলে সেলিম মিয়া (৩৪), একই উপজেলার ডুগডুগি গ্রামের নিহত রহিম বাদশার স্ত্রী আকলিমা থাতুন (২৭) ও গোপালপুর গ্রামের মৃত গোলাপ রহমানের ছেলে (৩৭)। রায় ঘোষনার সময় সেলিম মিয়া ও আইনুল আদালতে উপস্থিত থাকলেও আকলিমা পলাতক রয়েছেন।

মামলার উদ্ধৃতি দিয়ে রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবি এাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মন্ডল জানান, নিহত মাইক্রোবাস চালক রহিম বাদশার সহকারি হিসেবে কাজ করতেন সেলিম মিয়া। সেই সূত্রে রহিম বাদশাহর বাড়িতে যাতায়াতের এক পর্যায়ের তার স্ত্রী আকলিমার সাথে সেলিম মিয়ার পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। তাদের সম্পর্ক স্থায়ী করতে আকলিমা ও সেলিম মিয়া রহিম বাদশাহকে হত্যার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনামত ২০১৬ সালের ১০ জুলাই রাতে সেলিম মিয়া ও তার বন্ধু আইনুলকে নিয়ে মাইক্রোবাসের মধ্যে গলাকেটে হত্যা করে পাঁচবিবি উপজেলার বারোকান্দি এলাকায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরদিন ১১ জুলাই নিহতের বাবা শাহাদৎ হোসেন বাদী হয়ে ওই তিনজনের বিরুদ্ধে পাঁচবিবি থানায় মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ শুনানী শেষে আদালতের বিচারক এ রায় ঘোষনা করেন।