ডাল ভাত খেয়ে হলেও মানুষের জন্য কাজ করবো: ইঞ্জিনিয়ার আবুল কাসেম সীমান্ত

21

মো. নাঈম হাসান ঈমন, ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আওয়ামিলীগ ত্রান ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য, শাকসু’র সাবেক ভারপ্রাপ্ত ভিপি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সদস্য, ঝালকাঠির রাজাপুরের নিজ গালুয়ার কৃতি সন্তান ইঞ্জিনিয়ার আবুল কাসেম সীমান্ত রাজাপুরে কর্মরত প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন।

গতকাল ২৭ ফেব্রুয়ারি বিকেলে নিজ গালুয়া তার নিজ বাড়িতে রাজাপুর প্রেসক্লাব, রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাব ও রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংবাদিকদের সাথে এ মতবিনিময় করেন।

মতবিনিময় সভায় তিনি বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একনিষ্ঠ কর্মী। তার অনুমতি সাপেক্ষে আমি আমার নিজ এলাকায় বাংলাদেশ সরকারের উন্নয়নের কথা আপনাদের মাধ্যমে সবাইকে জানাতে এসেছি। বাংলাদেশ সরকার দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য যা করেছে তা সকলের জানা দরকার। এখন থেকে আমি নিয়মিত রাজাপুর কাঠালিয়ায় আসবো। এতদিন আসার তেমন উপায় ছিলনা। এখন থেকে আমি ডাল ভাত খেয়ে হলেও মানুষের পাশে থাকবো। মানুষের পাশে থাকার জন্যই আমি আমার নিজ এলাকায় এসেছি। আল্লাহ আমাকে টাকা দিয়েছে, আমায় মেধা দিয়েছে। এখন আমার দরকার সম্মান, ভালোবাসা। আমি দলের জন্য গুলি খেয়েছি। আমি মনেকরি আল্লাহ আমায় বোনাস জীবন দিয়েছে। তাই এই বোনাস জীবনে মানুষের জন্য কিছু করতে চাই। মানুষ চাইলে তারাই আমাকে জনপ্রতিনিধি বানাবে, সংসদে পাঠাবে।

তিনি আরো বলেন, জননেতা আলহাজ আমির হোসেন আমু আমার রাজনৈতিক অবিভাবক। তিনি যেমন বলছেন এখন তেমনই চলছি এবং আগামীতেও যেমন বলবেন তেমনই চলব। তাকে সব সময় আমি আমার মাথার উপরেই রাখি। তিনি আমাদের দেশের গর্ব। ঝালকাঠি জেলায় সে জন্মগ্রহণ করেছে এটা আমাদের পরম পাওয়া। এসময় তিনি সাংবাদিকদের ভিবিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। এই কেন্দ্রীয় নেতা আগামী ২ তারিখ বুধবার পর্যন্ত মোট ৪ দিনের রাজনৈতিক সফরে নিজ এলাকায় এসেছেন। এই সময়ের মধ্যে ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়া) সংসদীয় আসনের সব এলাকায় জনসংযোগ করবেন বলে জানান তিনি। তার আগামীর সকল কার্যক্রমে সাংবাদিকদের পাশে থাকার আহবান জানিয়েছেন। তিনি তার কর্মকাণ্ডের খারাপকে খারাপ এবং ভালোকে ভালো বলে সহযোগিতা করার কথাও বলেছেন এসময়।