জন্মদিনের অনুষ্ঠানে যাওয়াকে কেন্দ্র হত্যা,মূল আসামীকে গ্রেফতার

28

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা

ঢাকা জেলার সাভারে চাঞ্চল্যকর ভাড়াটে সন্ত্রাসী দ্বারা স্ত্রী কর্তৃক স্বামীকে হত্যা মামলার প্রধান আসামী সাব্বির (২২)’কে মানিকগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪।

রোববার ২৭ ফেব্রুয়ারি রাতে র‍্যাব-৪ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( মিডিয়া)জিয়াউর রহমান চৌধুরী এসব তথ্য জানান।

এসময় তিনি জানান,এর আগে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি রাতে একটি জন্মদিনের অনুষ্ঠানে যাওয়াকে কেন্দ্র করে ভিকটিম আনোয়ার হোসেন ও তার স্ত্রী তারা বানুর মধ্যে প্রচন্ড ঝগড়া হয়। এ সময় ঝগড়ার জের ধরে স্ত্রী তারা বানু স্বামীকে হত্যা করার জন্য বাড়ির পাশের তিন সন্ত্রাসী আকাশ, সাব্বির ও হৃদয়কে ভাড়া করে। ওই তিন সন্ত্রাসী আনোয়ার হোসেনকে বাড়িতে গিয়ে স্ত্রীর সামনেই চড়, থাপ্পর, লাথি এবং ইট দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়। পরে ভিকটিমের পরিবার আহত আনোয়ার হোসেনকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করলে গত ২০ ফেব্রুয়ারি সকাল ৬ টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। উক্ত হত্যা কান্ডে নিহত ভিকটিমের বোন বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে থানা পুলিশ ভিকটিমের স্ত্রী তারা বানু’কে গ্রেফতার করে। ঘটনাটি প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়াসহ এলাকায় ব্যপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হলে র‌্যাব-৪ এর একটি গোয়েন্দা দল পুলিশের পাশাপাশি ছায়া তদন্ত শুরু করে।

তিনি আরও জানান, র‌্যাব গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রোববার ( ২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুর পোনে ১ টার দিকে র‌্যাব-৪ এর সিপিসি -২ কোম্পানি কমান্ডার,
লে.কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান এর নেতৃত্বে একটি চৌকস আভিযানিক দল মানিকগঞ্জ জেলাধীন এলাকায় সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করে উক্ত চাঞ্চল্যকর হত্যার এজাহারনামীয় আসামী মো.সাব্বির (২২) কে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী’কে জিজ্ঞাসাবাদ এবং ঘটনার বিবরণে জানা যায়,গ্রেফতারকৃত আসামী উক্ত হত্যার সাথে সরাসরি জড়িত মর্মে স্বীকারোক্তি প্রদান করেছে। মূলত পারিবারিক দ্ব›দ্ব ও স্ত্রীর ইন্ধনের কারণে গ্রেফতারকৃত আসামী পলাতক আসামীদের যোগসাজোশে ভিকটিমকে হত্যার উদ্দেশ্যে চড়,থাপ্পর,লাথি এবং ইট দিয়ে এলোপাথাড়িভাবে আঘাত করে। নিহত আনোয়ার হোসেন সাভার মডেল থানাধীন গান্ধারিয়া এলাকার আবুল কাসেম ভুঁইয়ার ছেলে। ভিকটিমের ০৩ বছর বয়সী একটি পূত্র সন্তান এবং ১ বছর ০২ মাস বয়সী একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

গ্রেফতারকৃত আসামী’কে প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রমের জন্য সাভার মডেল থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।