মাটিরাঙ্গার গোমতিতে খালের পার ভেঙ্গে অসংখ্য পরিবারের ঘরবাড়ি ও ফসলী জমি বিলীন

40

নুরুল আলম, খাগড়াছড়ি:: খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার গোমতি বাজার সহ গোমতি বি কে উচ্চ বিদ্যালয়ের পূর্ব পাশে খাল ভেঙ্গে বিলিন হয়ে যাচ্ছে বাড়ি ঘর ও ফসলি জমি। বর্ষা মৌসুমের পানির স্রোতে আশে পাশের ৪০-৫০টি পরিবারের জায়গা জমি ও বাড়ি ঘর, মসজিদ মাদ্রাসা ভাঙ্গনের কবলে বিলিন হয়ে যাচ্ছে।

গোমতি বাজার এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায়, বর্ষা মৌসুমে পানির স্রোতে রজব আলী, মো: কালাম মিয়া, খোরশেদ আলম, নয়াব আলী, নুর মিয়া, আলি আহাম্মদ, বিরমহন, মনির হোসেন, আমির হোসেন, শামসু মিয়া শহিদুল ইসলাম, আবুল কালাম, শুক্কুর আলি, আব্দুল হোসেন, নজরুল ইসলামসহ অনেকের অসংখ্য জমি ও বাড়ি ঘর ও ফসলী জমি ভেঙ্গে ক্ষতি সাধন হয়েছে। এলাকাবাসীর দাবি, ভাঙ্গন রোধে সরকারি উদ্দ্যোগে রিটার্নিং ওয়াল নির্মাণ না হলে, ৪০-৫০টি পরিবার গৃহহীন হয়ে পরবে। এই সকল পরিবার গুলো ১৯৬০-১৯৭০ সাল থেকে এই স্থানে বসবাস করে আসছে। বেশির ভাগ পশ্চিম পাশের খালের পার ভেঙ্গে পূর্ব পাশের ভরা হচ্ছে। দুই পাশেই রির্টানিং ওয়াল দেওয়া জরুরি হয়ে পরেছে বলে মনে করেন এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী জানান, আমার বাবার আমল থেকে গোমতি এলাকায় বাড়ি ঘর নির্মাণ করে বসবাস করে আসছি। এখানে বসবাসকৃত প্রায় সকলেই হতদরিদ্র কৃষক। এসব ভাঙ্গন রোদের রিটার্নিং ওয়াল নির্মাণ করার সামর্থ নেই কাহারই। তাই সরকারি সহযোগীতায় যদি এসব এলাকা ভাঙ্গন রোধের উদ্যোগ নেওয়া হয় তাহলে সাধারণ মানুষের ঘর বাড়ি এবং জমি ভেঙে বিলীন হওয়া থেকে পরিত্রাণ পাবে। এছাড়াও গোমতি খালের ভাঙনে বিভিন্ন জায়গায় শত শত পরিবার ক্ষতি গ্রস্থ হচ্ছে। তা প্রশাসনিক উদ্যোগে ভাঙ্গন রোধের ব্যবস্থা নিলে এলাকাবাসী উপকৃত হবে।