অগ্নিদগ্ধ হয়ে ছেলের পর না ফেরার দেশে চলে গেল বাবাও

28

সোহেল সরকার,ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধিঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে আবাসিক ভবনে লাগা আগুনে দগ্ধ হয়ে ছেলে জুবায়েরের(৭) মৃত্যুর পর বাবা মকবুল হোসেনও না ফেরার দেশে চলে গেল বাবাও। বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৫টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। মকবুল আশুগঞ্জ উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের কান্দাপাড়া সফর মিয়ার ছেলে।

আগুনে দগ্ধ মকবুলের স্ত্রী রেখা বেগম ও তার আরেক ছেলে জয় এবং তাদের প্রতিবেশী জামিয়া রহমান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

আশুগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজাদ রহমান অগ্নিদগ্ধ মকবুলের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাত সোয়া ১০টায় আশুগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের শরীয়তনগর এলাকার আলাই মিয়ার পাঁচতলা বিশিষ্ট ভবনের নিচতলায় আগুন লাগে। নিচতলার একটি বাসায় স্ত্রী ও দুই ছেলে সন্তান নিয়ে ভাড়া থাকতেন মকবুল হোসেন। প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আশুগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে বাসার ভেতর থেকে মকবুল হোসেনের ছোট ছেলে জুবায়েরের দগ্ধ মরদেগ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় দগ্ধ মকবুল ও তার স্ত্রী রেখা বেগম এবং বড়ছেলে জয়কে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকায় পাঠানো হয়।