ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বৃদ্ধি

16

সোহেল সরকার,ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতাঃ
প্রাণ ফিরে পাচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর।আমদানি-রফতানি বাণিজ্যে গতি ফেরায় বেড়েছে রাজস্ব আদায়। সক্ষমতা বাড়াতে চলছে সংস্কার কার্যক্রম। উন্নয়ন কাজ শেষ হলে বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্যে আসবে নতুন গতি। ব্যবসায়ীদের দাবি, নিষিদ্ধ পণ্য ছাড়া সব পণ্যই আমদানির সুযোগ দেয়া উচিত।প্রতিবেশী ভারতের সাথে আন্তঃবাণিজ্য বাড়াতে দীর্ঘ ২৭ বছর আগে শুরু হয় আখাউড়া স্থলবন্দরের কার্যক্রম। মহামারির সময়েও থেমে যায়নি বন্দরের কার্যক্রম। বরং বেড়েছে রাজস্ব আদায়। অর্থ বছরের প্রথম ছয় মাসে, রাজস্ব আয় হয়েছে সাড়ে ৭ কোটি টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে এই অংক ছিল মাত্র ৩২ লাখ টাকা। মাশুল আদায় হয়েছে অর্ধকোটি টাকার বেশি।সংশ্লিষ্টদের দাবি, আমদানি নিষিদ্ধ ছাড়া সকল বৈধ পণ্য রফতানির সুযোগ দেয়া প্রয়োজন। অন্যদিকে, সীমান্তপথে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ এবং দূরত্ব কম হওয়ায় এই পথে বেড়েছে যাত্রী পারাপার। আদায় বাড়ছে ভ্রমণ কর।সক্ষমতা বাড়াতে বাস্তবায়ন হচ্ছে ৩০০ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ। দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য বেগবান করাই এই সংস্কারের উদ্দেশ্য। এই বন্দর দিয়ে, রফতানি হয় হিমায়িত মাছ, সিমেন্ট, রড, পাথরসহ ৩৬টি পণ্য। অন্যদিকে ভারত থেকে আমদানি হয় চাল, গম, আদা ও পেঁয়াজ।