আ’লীগ সরকার মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করেছে: ইব্রাহিম হোসেন বাবুল

22

ইসমাইল ইমন,চট্টগ্রাম মহানগর,আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক সদস্য এডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার মানুষের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করেছে। বিশ্বের অনেক উন্নত রাষ্ট্র এখনো করোনা ভাইরাসের টিকা দিতে পারেনি। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার করোনা টিকা নিশ্চিত করেছেন। জনসংখ্যার বড় একটি অংশ করোনা টিকা পেয়েছেন, এখন ১৭ বছরের নিচে যারা আছেন তারা পাবেন।সোমবার নগরীর চান্দগাঁও থানার চান্দাপুকুর পাড় ফায়জুল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বিনামূল্যে মা ও শিশুর স্বাস্থ্যসেবা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যসেবায় সহযোগিতা করেন সেন্ট্রাল সিটি হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার।
তিনি বলেন, সমাজের বিত্তশালীরা যদি এগিয়ে আসেন, তাহলে সমাজের অনেক সমস্যা সমাধান সম্ভব। আজ ফায়জুল ফাউন্ডেশন যে উদ্যোগ নিয়েছে তা প্রশংসনীয়। এভাবে আমাদের সকলে নিজের আশেপাশের মানুষের খোঁজ খবর নিলে তাদের পাশে থাকলে সমাজ ও রাষ্ট্র আরো এগিয়ে যাবে।চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক এস এম নছরুল কদিরের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফায়জুল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এস এম নুরুল কদির, সেন্ট্রাল সিটি হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. মোঃ রেজাউল ইসলাম, চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মাঈনুর রহমান।বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ফায়জুল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এস এম নুরুল কদির বলেন, সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আমাদের পরিবারের মুরব্বিদের নামে আমাদের এই সংগঠন। আমরা মানুষের জন্য, সমাজের জন্য কিছু করার মানসে কাজ করছি। আমাদের কিছু পাওয়ার নাই, আমরা সমাজকে কিছু দিতে চাই। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সেন্ট্রাল সিটি হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. মোঃ রেজাউল ইসলাম বলেন, সামাজিক এসব কাজে আমাদের সম্পৃক্ত করার জন্য আমরা হসপিটালের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। মানুষের সেবা করা আমাদের কাজ, সেটা যখন মানুষের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে করতে পারি তখন আত্মতৃপ্তি বোধ করি।বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মাঈনুর রহমান বলেন, মানুষ মানুষের জন্য একথা সমাজের অনেকেই এখন ভুলে গেছে। কিন্তু ফায়জুল ফাউন্ডেশনের এ উদ্যোগ সেটা আবার মনে করিয়ে দিয়েছে। আমরা সকলেই মানুষ, একজনের পাশে আরেকজনের থাকা আমাদের নৈতিক ও ঈমানী দায়িত্ব।
অনুষ্ঠানে সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন অনুরাগ ক্লাবের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও সদস্যবৃন্দ।