সংবাদ প্রকাশের জেরে রাজশাহীতে সাংবাদিককে হত্যার হুমকি

16

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর মোহনপুরে নিউজ প্রকাশের জের ধরে দৈনিক উত্তরা প্রতিদিনের প্রতিনিধিকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি দিয়েছেন কেশরহাট পৌর কাউন্সিলর সাবের আলী প্রামানিক। এঘটনায় মোহনপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন সাংবাদিক রায়হানুল হক রিফাত। তিনি দৈনিক উত্তরা প্রতিদিনের উত্তরা প্রতিবেদক ও পদ্মাটাইমস২৪ডটকমের নিজস্ব প্রতিবেদক হিসেবে কর্মরত আছেন।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে,১৭ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা ৩৩ মিনিট কেশরহাট ভূমি অফিসে পারিবারিক জমিজমা সংক্রান্ত কাজে গেলে কাউন্সিলর সাবের আলী প্রামাণিক ভূমি অফিসের ভেতরে রায়হানকে দেখতে পেয়ে অশ্লীল ও অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। তাকে গালিগালাজের কারণ জানতে চাইলে সে বলে তুইসহ অন্য সাংবাদিকরা মিলে আমার বিরুদ্ধে নিউজ করেছিস। তোর এতবড় সাহস শালা এখনও সময় আছে তোরা আমার সাথে সমঝোতা করে নে নইলে তোকে মেরে ফেলবো। এঘটনার পর সাংবাদিক রায়হান নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। বিষয়টি স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকর্মীরা জানার পর তাদের মধ্যেও চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে।
এ ঘটনায় রাজশাহী বরেন্দ্র প্রেসক্লাব এক বিবৃতিতে সভাপতি আবু কাওসার মাখন ও সাধারন সম্পাদক রেজাউল করিম বলেন,সাংবাদিকের কাজ হলো, সমাজের অসঙ্গতি তুলে ধরা। সেই অসঙ্গতি তুলে ধরতে গিয়ে নানা সময় নানা বাঁধার সমূখিন হতে হয়। এটা এরই ধারাবাহিকতা। রাজশাহী বরেন্দ্র প্রেসক্লাব তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।
এবিষয়ে স্থানীয় সাংবাদিক সংগঠণ মোহনপুর মডেল প্রেসক্লাব ও উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি রফিকুল আলম সোহেল ও সাদিকুল ইসলাম স্বপন বলেন, সাংবাদিকরা সমাজের দর্পণ। তাঁরা নির্ভিক এবং কারো রক্ত চক্ষুকে ভয় পায়না। অন্যায়ের বিরুদ্ধে কলম চলছে চলবে। সাবের কাউন্সিলর একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হয়ে কোটি কোটি টাকার সরকারি জমি দখল করে অবৈধভাবে বিল্ডিং বানিয়ে রাষ্ট্রের ক্ষতি সাধন করবে তা লিখতে গেলে সমস্যা কোথায়। রায়হানকে হুমকির ঘটনায় সাংবাদিক সমাজ মর্মাহত। এ ঘটনায় আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।

সংগঠন দুটি আরো জানায়
প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে স্থানীয় প্রশাসন দখল হওয়া একটি জায়গায় সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দিলেও দখল হওয়া অন্য জায়গাগুলি উদ্ধারে গড়িমসি করায় অবৈধ দখলদাররা সাংবাদিকদের কোনঠাসা করতে কুট কৌশলের আশ্রয় নিয়ে হুমকি ধামকি ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর পায়তারা করছেন।

এবিষয়ে কাউন্সিলর সাবের আলী বলেন,রায়হানকে আমি এভাবে বলিনি। সে আমার ভাতিজার মত। তারা আমার নামে নিউজ করেছে তাই সমঝোতা করতে বলেছি। আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা।

এবিষয়ে মোহনপুর থানা কর্মকর্তা ওসি মোহা. তৌহিদুল ইসলাম বলেন,সাংবাদিকের অভিযোগ তদন্ত করতে এসআই ইব্রাহিম খলিলুল্লাহকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সঠিক তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্যঃ গত ১০ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার রাজশাহী ও ঢাকা হতে প্রকাশিত বিভিন্ন গণমাধ্যম ও অনলাইনে কেশরহাট পৌর কাউন্সিলর সাবের আলী প্রামাণিক ও লোকজন ও কিছু অবৈধ দখলদার ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে সরকারি জায়গা দখল,ক্রয় বিক্রয় ও অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এ সংবাদ প্রকাশের জের ধরেই সাবের আলী কাউন্সিল এই হুমকি প্রদান করেছে। ইতিপূর্বে সে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী আরিফুজ্জামান রাসেলকেও হত্যার হুমকি দিয়েছিল যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।