ঝালকাঠিতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও ঝাড়ু মিছিল

24

মো. নাঈম হাসান ঈমন, ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের একটি মামলায় পলাতক থাকা ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার কুলকাঠি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান বাচ্চুর বিচার দাবিতে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী। ১৭ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার সকাল সারে ১০ টায় ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে। বিক্ষোভে ফেটে পড়েন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।তাদের দাবী এলাকার একসকিশোরীকে ধর্ষন ঘটনায় রাজধানীর খিলগাও থানায় দায়েরকৃত মামলায় অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে হবে।
মানববন্ধন শেষে চেয়ারম্যান আকতারুজ্জামান বাচ্চুর কুশপুত্তলিকা দাহ এবং কুলকাঠি সড়কে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়।উল্লেখ্য, চাকরি ও বিয়ে করার প্রলোভনের অভিযোগে ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার কুলকাঠি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান বাচ্চুর নামে রাজধানীর খিলগাঁও থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে গত ১২ জানুৃযারি একটি মামলা দায়ের করেছে এক কিশোরী। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ৭ থেকে ৮ মাস আগে বাচ্চুর সঙ্গে ওই নারীর মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয় হয়। পরিচয় সূত্রে ওই নারীকে ঢাকায় চাকরি দেবে এবং বিয়ে করবে বলে গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর দক্ষিণ বনশ্রীর একটি বাসায় ঢাকায় নিয়ে আসেন। ওইদিন তার সঙ্গে জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক করেন। সর্বশেষ গত ৬ জানুয়ারি রাত ১০টার দিকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মামলার ২নং আসামির দক্ষিণ বনশ্রীর বাসায় নিয়ে আসেন।ভুক্তভোগীর বিষয়ে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান বলেন, ‘এলাকার মেয়ে হিসেবে এবং আমি জনপ্রতিধির দায়িত্ব পালনের সূত্রে তাকে চিনি। তবে এই অভিযোগগুলো শতভাগ মিথ্যা। ওই মেয়ে সামনা-সামনি যদি বলতে পারে তাহলে যে বিচার করা হবে আমি সেই বিচারই মেনে নেব।বাচ্চু নলছিটি উপজেলার কুলকাঠি ইউনিয়নের তিনবার আওয়ামী লীগের মনোয়ন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বর্তমানে কুলকাঠি চেয়ারম্যানের দায়িত্বের পাশাপাশি নলছিটি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্বও পালন করছেন।খিলগাঁও থানার ওসি ফারুকুল আলম বলেন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী ২০০৩) এর ৯(১)/৩০ ধারায় মামলাটা রুজু করা হয়েছে।