মধুখালীতে বিচিত্র প্রানীর প্রাণী সম্পদ মেলা

10

পার্থ রায়, উপজেলা প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের মধুখালীতে ব্যতিক্রমধর্মী প্রাণী সম্পদ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। মেলায় খামারিরা বিভিন্ন প্রজাতির পশু পাখি নিয়ে মেলায় হাজির হন। একটি ছাগলের ৫টি বাচ্চা, একটি গাভি জন্ম দিয়েছে দুইটি বাছুর, ওই গাভিটি প্রতিদিন ২০ লিটার দুধ দেয়, আবার একজোড়া কবুতরের দাম ১৫ হাজার টাকা, আরেকটি গাভি দুধ দেয় ৪০ লিটার, একটি মুরগির ওজন ৬ কেজি -এরকম বিভিন্ন পশু পাখি নিয়ে হাজির হন খামারিরা।বুধবার (১৬ জানুয়ারি) বেলা ১১টা থেকে মধুখালী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ব্যতিক্রমধর্মী এ মেলার আয়োজন করেন উপজেলা প্রাণী সম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতাল।মেলায় দামী গরু, বাছুর, মুরগী, হাস, কবুতর, দেশীয় ছাগল সহ বিভিন্ন পশু পাখি মেলার স্টলে স্থান পায়। এছাড়াও মেলায় গবাদি পশুর খাবার, ঔষধ সহ অর্ধশতাধিক স্টলে খামারিরা তাদের পণ্য মেলায় উপস্থাপন করেন।
এদিকে মেলায় বিভিন্ন পশু পাখির চিকিৎসাসেবা দেওয়ার জন্যও স্টল রাখা হয়। সেখানে বিভিন্ন স্থান থেকে আসা পশু পাখির চিকিৎসা প্রদান করেন চিকিৎসকবৃন্দ।
মেলার উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আশিকুর রহমান চৌধুরী। এসময় প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. পৃথ্বীজ কুমার দাস, সমাজসেবা কর্মকর্তা কল্লোল সাহা, কৃষি কর্মকর্তা আলভির রহমান সহ কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মেলা শেষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় এবং উক্ত সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা কর্মকর্তা আশিকুর রহমান চৌধুরী, আরো বক্তব্য রাখেন অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।বিকালে মেলা শেষে খামারিদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।মধুখালী উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. পৃথ্বীজ কুমার দাস জানান, মেলায় ব্যতিক্রমধর্মী পশু পাখি নিয়ে হাজির হয় খামারিরা। পশু পালনে উদ্বুদ্ধ করতেই এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, কোনো বেকার যুবক খামার করতে চাইলে তাকে সকল ধরনের সহায়তা প্রদান করা হবে।