নিহত রাঙ্গুনিয়ার ইউসুফের বাড়িতে খালেদ মাহমুদ: দোষীদের বিচারের আশ্বাস

21

এম. মতিন, চট্টগ্রাম।

ইউপি নির্বাচনে ছোট ভাইকে ভোট দিতে দেশে এসে নির্বাচনী পরবর্তী সহিংসতায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত হয়ে ১১ দিন পর মৃত্যু কুলে ঢলে পড়েন রাজানগর যুবলীগের সভাপতি আবু তৈয়ব মেম্বারে বড় ভাই প্রবাসী ইউসুফ তালুকদার। নিহত ইউসুফের পরিবারকে দেখতে গেলেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীর ছোট ভাই চট্টগ্রাম উত্তর জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি ও এন এন কে ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মোঃ খালেদ মাহমুদ।

আজ বুধবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ১নং রাজানগর ইউনিয়ন বগাবিলি গ্রামে নিহত ইউসুফের বাড়িতে গিয়ে তার মা-বাবা, ভাই, ছেলে সন্তানসহ পরিবার সদস্যদেরকে সমবেদনা জানান।

তথ্যমন্ত্রীর ছোট ভাই খালেদ মাহমুদকে কাছে পেয়ে নিহতের মা ছেলোয়ারা বেগম ও বাবা আবদুল হাকিম কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এসময় তারা ছেলের হত্যাকারীদের ফাঁসি নিশ্চিতে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের সহায়তা কামনা করেন।

এসময় খালেদ মাহমুদ তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, ইউসুফ হত্যা মামলায় অভিযুক্ত আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি দলের পক্ষ থেকে জোর দাবি জানানো হবে। এসময় তিনি নিহত ইউসুফের ছোট ভাই রাজানগর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও সদ্য নির্বাচিত ইউপি সদস্য মোঃ আবু তৈয়বকে যেকোন প্রয়োজনে তাদের পরিবারের পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

এসময় রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ১নং রাজানগর ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউনুচ, মাহমুদুল হাসান, খোরশেদুল আলম, ইউপি সদস্য এরশাদুল আলম, আবদুল বারেক, মোঃ হারুন, বেলাল বিন সত্তার, আলমগীরসহ উপজেলা ও স্থানীয় যুবলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ২ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় মো. ইউসুফ রানীহাট বাজার থেকে বাসায় ফেরার পথে বগাবিলি ব্রিজ এলাকায় তার ওপর অতর্কিত হামলা করে প্রতিপক্ষ আজগর বাহিনী। ঘটনার পর স্থানীয়রা ইউসুফকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং পরে নগরের পাঁচলাইশস্থ পার্কভিউ হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে পরবর্তীতে তাকে আবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। গত শনিবার (১২ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৫টায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়।

এই ঘটনায় নিহত ইউসুফের স্ত্রী মোছাম্মৎ শাহিনুর আক্তার বাদী হয়ে ১নং রাজানগরের বগাবিলি এলাকার নবীর হোসেনের ছেলে আজগর আলীকে (৪৫) প্রধান আসামি করে ১২ জনের বিরুদ্ধে রাঙ্গুনিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।