শেরপুরে সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে নতুন পোশাক নিয়ে ‘ভয়েস অফ ঝিনাইগাতী’

এম শাহজাহান মিয়া ঝিনাইগাতী শেরপুর প্রতিনিধিঃ ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে শেরপুরে ঝিনাইগাতীতে সমাজের অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত দরিদ্র পরিবারের শিশুদের মাঝে ঈদের উপহার হিসেবে নতুন পোশাক বিতরণ করেছে ‘ভয়েস অফ ঝিনাইগাতী’ নামের এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। ২০ জুলাই মঙ্গলবার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে ৩৩ জন শিশুর মাঝে ঈদের নতুন পোশাক তুলে দেন সংগঠনের সদস্যরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. মনিরুজ্জামান, বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুক আহমেদ, প্রশাখা’র সাবেক সাধরাণ সম্পাদক শাহরিয়ার কাজল, বণিক সমিতির ম্যানেজার মো. মাসুদ মিয়া, ভয়েস অফ ঝিনাইগাতী’র প্রতিষ্ঠাতা মো. জাহিদুল হক মনির, প্রশাসনিক এডমিন মো. মোশাররফ হোসাইন, এডমিন মো. সোহেল, রাব্বী প্রমুখ। নতুন পোশাকের মধ্যে ছিল ছেলে শিশুদের জন্য পাঞ্জাবি-পায়জামা, শার্ট, পেন্ট এবং মেয়ে শিশুদের জন্য জামা এবং মাস্ক। এবার ঈদে নতুন সামগ্রী পেয়ে তারা খুবই আনন্দিত। আয়োজক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা মো. জাহিদুল হক মনির বলেন, ‘এই সংগঠন দরিদ্র মানুষ ও সুবিধা বঞ্চিতদের জন্য নানা রকম কাজ করে থাকে। সংগঠনের সদস্যরা নিজেরা এবং ফেসবকুকের মাধ্যমে সমাজের বিত্তবানদের কাছ থেকে অনুদান সংগ্রহ করে অসহায় ও এতিম শিশুদের মাঝে ঈদের নতুন পোশাক বিতরণ করা হয়েছে। যারা খুব অর্থকষ্টে থাকেন, তাদের মুখে সামান্য হলেও যেন হাসি ফুটে, এ প্রচেষ্টার অংশ হিসেবেই এ আয়োজন।’ তিনি আরও বলেন, ‘সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য আরও কিছু করতে চায়। ‘ভয়েস অফ ঝিনাইগাতী’ ভবিষ্যতে অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য ফ্রিতে পড়াশোনা ও খাবার পরিবেশনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে চায়। আর এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা দরকার। সেই লক্ষ্যে কাজও করে যাচ্ছি আমরা।’ বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুক আহমেদ বলেন, ‘অবহেলিত মানুষের পাশে রাষ্ট্রের পাশাপাশি দেশ ও সমাজের সব স্তরের ব্যক্তিরা এগিয়ে এলে তাদের মুখে হাসি ফোটানো সম্ভব। ‘ভয়েস অফ ঝিনাইগাতী’র এ ধরনের কাজ দৃষ্টান্তমূলক। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. মনিরুজ্জামান বলেন, ‘কিছু কাজ আছে যা নিজের বিবেকের তাড়নায় করতে হয়। সে কাজগুলো জীবনে যে প্রশান্তি এনে দেয়, তা আরও নতুন করে ভালো কিছু কাজের উৎসাহ জোগায়।’