কালিগঞ্জে  লকডাউনে দ্বিতীয় দিনে মাঠে উপজেলা প্রশাসন

কালিগঞ্জ (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ কভিড-১৯ মহামারি  করোনাভাইরাস  রোধে সারাদেশের মতো কঠোর লকডাউনে দ্বিতীয় দিন  বাস্তবায়ন করতে কালীগঞ্জ উপজেলায়  মাঠে নেমেছে  উপজেলা প্রশাসন। আজ শুক্রবার সকাল  ১১ টায়  কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খন্দকার রবিউল ইসলাম এর নেতৃত্বে কালিগঞ্জ উপজেলার নাজিমগঞ্জ মোকাম কালিগঞ্জ ফুলতলা মোড় কাঁচা বাজার সাহেবের মোড় নলতা বাজারসহ অন্যান্য স্থানে লকডাউন বাস্তবায়নে উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশের পক্ষ থেকে টহল জোরদার করা হয় এ সময় সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় বিভিন্ন ব্যবসায়ী ও মাক্স না পড়ে বাইরে আসার কারণে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জরিমানা আদায় করা হয় কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খন্দকার রবিউল ইসলাম লকডাউন বাস্তবায়নে নেতৃত্ব দেন এ সময় উপস্থিত ছিলেন কালিগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ গোলাম মোস্তফা কালিগঞ্জ থানা পুলিশ আনসার ভিডিপি সহ প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ ও স্থানীয় করনা এক্সপার্ট টিমের সদস্যরা সাথে ছিলেন কালীগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা খন্দকার রবিউল ইসলাম জানান মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সারাদেশে কঠোর লকডাউন চলছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বাংলাদেশ পুলিশ, বিজিবি, আনসার ব্যাটালিয়ন , অঙ্গীভূত আনসার সহ সকল আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মাঠে আছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কাউকে বাইরে পাওয়া গেলে বা মাস্ক বিহীন কাউকে পাওয়া গেলে কঠোরভাবে আইন প্রয়োগ করা হবে। সাতক্ষীরা জেলার মান্যবর জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির স্যার এর নির্দেশক্রমে সাতক্ষীরা জেলা করোণা প্রতিরোধ কমিটির সিদ্ধান্তের আলোকে কালীগঞ্জ উপজেলায় টহল , অভিযান মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে লকডাউন বাস্তবায়ন চলছে তিনি আরো বলেন সাতক্ষীরা জেলায় করোনাভাইরাস মোকাবেলায় স্পেশাল  সময় নির্ধারণ করা হয়েছে সকাল ৮ টা থেকে ১১ টা পর্যন্ত কাঁচা বাজার খোলা থাকবে এরপর থেকে ঔষধের দোকান ব্যতীত সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে বিনা প্রয়োজনে কেউ যেন ঘরের বাইরে বের না হয় সরকার ঘোষিত এমন কঠোর লকডাউন বাস্তবায়ন করতে উপজেলা জুড়ে সেনাবাহিনী বিজিপি পুলিশ ও প্রশাসনের সমন্বয়ে টহল জোরদার করা হয়েছে। লকডাউন না মেনে দোকানপাট খোলা ও অকারণে বাইরে আসার অভিযোগে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জরিমানা আদায় করা হয়