পুলিশ সুপারের মধ্যস্থতায় সুমাইয়া ফিরে পেলেন সুখের সংসার

33

মাসউদুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা সদর সংবাদদাতা:

চুয়াডাঙ্গার মানবিক পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলামের মধ্যস্থতায় মোছা. সুমাইয়া খাতুন ফিরে পেলেন তাঁর সুখের সংসার। গতকাল রোববার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে স্থাপিত উইমেন সার্পোট সেন্টারের মাধ্যমে তিনি তাঁর সুখের সংসার ফিরে পান।
জানা যায়, চুয়াডাঙ্গা শহরতলীর দৌলাতদিয়াড় বঙ্গজপাড়ার আব্দুস সামাদের মেয়ে সুমাইয়া খাতুনের সঙ্গে আলমডাঙ্গা উপজেলার ওসমানপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে আকাশ মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে সুমাইয়া খাতুন ও আকাশ মিয়া তাদের পরিবারকে কিছু না জানিয়ে ইসলামী শরীয়াহ মোতাবেক বিবাহ করে দাম্পত্য জীবন শুরু করেন। কিছুদিন না যেতেই আকাশ সুমাইয়া খাতুনের সাথে খারাপ ব্যবহার ও শারীরিক নির্যাতন করে। সুমাইয়া খাতুন শারিরীক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে তাঁর বাবার বাড়ি ফিরে যান। এরপর আকাশ সুমাইয়ার কাছে যৌতুক দাবি করেন এবং না দিলে তাকে স্ত্রী হিসাবে স্বীকার করবে না বলে হুমকি দেয়।সুমাইয়া খাতুন বিভিন্ন জায়গায় তার সমস্যার সমাধান চেয়ে যোগাযোগ করেও কোনো সমাধান না পেয়ে অবশেষে তার অসহায়ত্ব থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলামকে জানালে পুলিশ সুপার উক্ত বিষয়টির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তার কার্যালয়ে অবস্থিত “উইমেন সাপোর্ট সেন্টার’কে” দায়িত্ব দেন।দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা উভয় পক্ষকে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে গতকাল রোববার হাজির করেন। পরে পুলিশ সুপারের প্রত্যক্ষ মধ্যস্থতায় আকাশ মিয়া তাঁর স্ত্রী মোছা. সুমাইয়া খাতুনের সাথে পুনরায় সংসার করতে সম্মত হয়। অবশেষে পুলিশ সুপার চুয়াডাঙ্গার হস্তক্ষেপে মোছা. সুমাইয়া খাতুন ফিরে পেল তার সুখের সংসার।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •