প্রায় তিন মাস পর মোংলায় নতুন করে করোনার রোগী সনাক্ত

9

ওয়াসিম আরমান, মোংলা প্রতিনিধিঃ-

তিন মাস পর মোংলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয়েছে। করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি হলেন উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়নের আজিজভাট্টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শশাঙ্ক রায় (৪৬)।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জীবিতেষ বিশ্বাস জানান, মোংলা পৌর শহরের শেহলাবুনিয়ার বাসিন্দা ও আজিজভাট্টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শশাঙ্ক রায় (৪৬) মঙ্গলবার সকালে করোনা পরীক্ষা করান। পরীক্ষায় রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। এরপর তাকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। এখন তিনি বাড়ীতে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

এর আগে সর্বশেষ গত ১২ অক্টোবর শাহজালাল পাড়ার সেকেন্দার ফরাজীর করোনা সনাক্ত হয়েছিলো। গত নভেম্বর থেকে সারাদেশেই নতুন করে করোনা প্রাদুর্ভাব বাড়তে শুরু করেছে। তার নতুন ঢেউ মোংলাতেও লেগেছে।

এদিকে নতুন করে করোনা আক্রান্তের খবরে স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের মাঝে এনিয়ে আবারো আতংক ছড়িয়ে পড়েছে। সরকারী হাসপাতাল সংলগ্ন কলেজ-হাসপাতাল রোডের বাসিন্দা আশরাফুল আলম বাবু বলেন, গত তিন চার মাস ধরে আমরা অনেকটা করোনামুক্ত ছিলাম বলা যায়। কিন্তু মঙ্গলবার হঠাৎ হাসপাতালে একজনের করোনা সনাক্ত হয়েছে, এটা চরম দুশ্চিন্তার বিষয়। এখন তো আমাদের মধ্যে ভয় ও আতংক উভয়ই কাজ করছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জীবিতেষ বিশ্বাস বলেন, তিন মাস পর নতুন করে এক শিক্ষকের করোনা সনাক্ত হয়েছে। এখন থেকে আমাদের সকলকেই কঠোরভাবে স্বাস্থ্য বিধি মানতে হবে, মাস্ক বাধ্যতামুলক পরতে হবে। ভিড় এড়িয়ে চলতে হবে আর ঘন ঘন সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে এবং স্যানিটাইজ ব্যবহার করতে হবে। তবে নতুন যিনি সনাক্ত হয়েছেন তার ওমিক্রন ভাইরাস কিনা সেই পরীক্ষা এখানে হয়না। তাই বুঝা যাচ্ছেনা করোনা নাকি ওমিক্রন, তারপরও আমাদের খারাপটা ধরেই অধিক সর্তক হতে হবে। তিনি আরো বলেন, যিনি নতুন সনাক্ত হয়েছেন তিনি পেশায় শিক্ষক। তার ওই বিদ্যালয়ের বাকী সকল শিক্ষক-কর্মচারীদেরকেও বুধবার করোনা পরীক্ষা করানোর জন্য হাসপাতালে ডাকা হয়েছে। এছাড়া উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। এনিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ তিনিই নিবেন।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এস, এ আনোয়ারুল কুদ্দুস বলেন, শিক্ষক শশাঙ্ক রায়ের (৪৬) করোনা পজেটিভ সনাক্ত হওয়ায় তিনি হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। তার বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষককে করোনা পরীক্ষা করানো ও বিদ্যালয়টি স্যানিটাইজ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, যে শিক্ষকের করোনা পজেটিভ হয়েছে তার আগে থেকেই দুই ডোজ করোনা টিকা নেয়া রয়েছে। সে এখন বাড়ী সুস্থ আছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...