দক্ষিণ রাউজান দুটি মন্দিরের অফিস কক্ষের দেওয়াল ভেঙ্গেঁ নগদ অর্থ ও কাগজপত্র লুটপাট

0

মিন্টু কান্তি নাথ বিশেষ প্রতিনিধিঃ গতো ২সেপটেম্বর অনুমানিক সকাল ৬:৪৫মিনিটের দিকে, সি সি টিভি ক্যামেরাই চিহ্নিত ১৪নং বাগোয়ান ইউনিয়নের এর ৪নং ওয়ার্ডের গশ্চি ব্রাহ্ম দাশপাড়ার, মৃত গুন্ন মিয়ার ছেলে মোহাম্মদ হাফিজ আহমেদ (৫৭) এর নেতৃত্বে অজ্ঞাতনামা আরো ৭/৮ জন মিলে… মন্দিরের অফিস কক্ষের পিছনে অংশে কোদাল হাতুড়ি দিয়ে দেওয়াল ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করেন,অফিস কক্ষের ভেতরে প্রবেশ করার পর, অফিস কক্ষে থাকা স্টিলের আলমিরা ভাঙচুর কোরিয়া। আলমিরায় রক্ষিত মন্দিরের নামীয় কাগজপত্র ও বহু মূল্যবান জিনিসপত্র এবং আলমিরাতে থাকা নগদ দেড় লক্ষ টাকা চুরি করে নিয়ে যায়। উক্ত ঘটনাটির বিষয়ে গঙ্গা মন্দিরের পাশে থাকা শ্রী শ্রী মা মগদেশ্বরী সেবা খোলায় প্রদীপ জ্বালানোর সময় স্বচক্ষে দেখিয়া ধরে এলাকার লোকজন এবং মন্দির কমিটিকে ঘটনার বিষয়ে প্রদান করেন। পরবর্তীতে সংবাদ পেয়ে দক্ষিণ রাউজান পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি প্রকাশ সরকার ও শ্রী শ্রী মা মগদেশ্বরী ও গঙ্গা মন্দিরের পরিচালনা পরিষদের সদস্য এবং স্থানীয় কিছু লোকজন সহ মন্দিরের অফিস কক্ষের ভিতরে গিয়ে,ভিডিও ফুটেজ ও বাস্তবে দেখে।পরে প্রকাশ সরকার বাদী হয়ে রাউজান থানায় একটি মামলা করেন। এলাকাবাসী এলাকাবাসী মন্দির পরিচালনা কমিটি ও মন্দির পরিচালনা কমিটি, দক্ষিণ রাউজান শ্রী শ্রী মা মগদ্বেশরী মন্দির ও কেন্দ্রীয় গঙ্গা মন্দির এর অফিস কক্ষের দেওয়াল ভেঙ্গেঁ মন্দিরের প্রয়োজনীয় কাগজ পএ ও নগদ অর্থ লুটপাট ও ক্ষতি সাধন করা যে বা যারা করছেন। সিসিটিভি ক্যামেরাতে চোর চিহ্নিত এই পরিকল্পিত সাম্প্রদায়িক হামলার কঠিন বিচার চাই, রাউজানকে সবাই সবসময় অসাম্প্রদায়িকতার রোল মডেল বলা হয়,,সকল উর্ধতন কতৃপক্ষের দৃস্টি আকর্ষন করছি। ও উক্ত প্রশাসনের কাছে সুষ্ট বিচার ও দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •