রাজবাড়ীতে কাজী হেদায়েত’র ৪৬ তম শাহাদাত বার্ষিকী পালন

0

রাজবাড়ী থেকে সুজন বিষ্ণুঃ সাবেক গোয়ালন্দ মহকুমা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক গণ পরিষদ সদস্য, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের বিশস্ত রাজনৈতিক সহকর্মী ও সাবেক চেয়ারম্যান রাজবাড়ী পৌরসভা বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী হেদায়েত হোসেনের ৪৬ তম শাহাদত বার্ষিকীতে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল আয়োজন করে জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ। আজ বুধবার (১৮আগস্ট) বিকালে কাজী হেদায়েত হোসেনের মরহুমের কবর স্থানে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন, রাজবাড়ী ১ আসনের মাননীয় সাংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইরাদত আলী সহ দলের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা।এরপর জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও কাজী হেদায়েত হোসেনের প্রতিকৃতিতে পুষ্প মাল্য অর্পন করেন জেলা আওয়ামী লীগ, পৌর আওয়ামী লীগ, যুব লীগ, ছাত্র লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, স্বেচ্ছা সেবক লীগ, কৃষক লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন। তারপর আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক সফিকুল ইসলাম সফির সঞ্চালনায় জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. গনেশ নারায়ণ চৌধুরীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, রাজবাড়ী ১ আসনের মাননীয় সাংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলী, বীর মুক্তি যোদ্ধা ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকির আব্দুল জব্বার, সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলী চৌধুরী, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইরাদত আলী, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফীকুল ইসলাম শফী।
এছাড়া জেলা আওয়ামী লীগ, পৌর আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ এর সম্মানিত নেতৃবৃন্দ ও সকল সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।কাজী কেরামত আলী এবং ইরাদত আলী তাদের বক্তব্যে বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে নৃশংস ও বর্বরোচিত ভাবে সপরিবারে হত্যা করার তিনদিন পর ১৮ আগস্ট রাজবাড়ি শহরের কলেজ রোডে ড্রাই-আইস ফ্যাক্টরী এলাকায় একদল অজ্ঞাতনামা বন্দুকধারী ঘাতক-সন্ত্রাসীরা আমার পিতা কাজী হেদায়েত হোসেনকে হত্যা করে।
আরও বলেন, আমাদের পিতা যেমন সারাটি জীবন জাতির জনকের পাশে থেকেছেন আমরাও তেমনি জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার কর্মী হিসেবে সমৃদ্ধ দেশ গড়ার অভিযাত্রায় যথাসাধ্য চেষ্টা করে যাচ্ছি । আমরা যেন আমাদের পিতার মত রাজবাড়ীবাসীর পাশে থাকতে পারি। আমাদের জন্য দোয়া করবেন। দোয়া মহফিল শেষে কাজী হেদায়েত হোসেনের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে সবার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে আলোচনা সভা সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •