মুছাপুর ইউপি নির্বাচনে নৌকার হাল ধরতে চান মাঝি হতে চান আলহাজ্ব মোহাম্মদ ছানাউল্লাহ্ ভুঁইয়া

11

শফিকুল ইসলাম,রায়পুরা প্রতিনিধি :নরসিংদীর আসন্ন মুছাপুর ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সৎ,নিষ্ঠাবান,মেধাবী,গরীব-অসহায় মানুষে সঙ্গী,বেকারযুবকদের সুপথ প্রদর্শক ও ন্যায়বিচারক যোগ্য তারুণ্য ও মরহুম সাবেক এম.পি ও জেলা গর্ভনর এডঃ আফতাব উদ্দিন ভু্ঁইয়ার সুযোগ্য উত্তর সূরি আলহাজ্ব মোহাম্মদ ছানাউল্লাহ্ ভুঁইয়া,ধর্মবিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ,রায়পুরা উপজেলা শাখা,উক্ত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মুছাপুর ইউপি বাসির নিকট দোয়া প্রার্থনা করেন।বর্তমান প্রেক্ষাপটে তরুণ সমাজ ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে একজন ন্যায়বিচারক মরহুম সাবেক এম.পি ও জেলা গর্ভনর এডঃ আফতাব উদ্দিন ভু্ঁইয়ার সুযোগ্য উত্তর সূরি ছাড়া কোন বিকল্প নেই।এছাড়া শিক্ষিত বেকারদের কর্মসংস্থান করার বিপ্লবী উদ্যোগ নিতে কেবল একজন ত্যাগী, সৎ,নিষ্ঠাবান, মেধাবী, ন্যায়বিচারক সমাজের অহংকার মরহুম সাবেক এম.পি ও জেলা গর্ভনর এডঃ আফতাব উদ্দিন ভু্ঁইয়ার সুযোগ্য উত্তর সূরির পক্ষে নেওয়া সম্ভব। এর ধারাবাহিকতায় আসন্ন ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হয়েছেন বর্তমান সমাজের অহংকার ও মরহুম সাবেক এম.পি ও জেলা গর্ভনর এডঃ আফতাব উদ্দিন ভু্ঁইয়ার সুযোগ্য উত্তর সূরি আলহাজ্ব মোহাম্মদ ছানাউল্লাহ্ ভুঁইয়া, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, রায়পুরা উপজেলা শাখা। এই প্রসঙ্গে মুছাপুর ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সৎ, নিষ্ঠাবান সমাজের অহংকার, মরহুম সাবেক এম.পি ও জেলা গর্ভনর এডঃ আফতাব উদ্দিন ভুঁইয়ার সুযোগ্য উত্তর সূরি বলেন,বর্তমান সময়ে করোনা পরিস্থিতির এক মর্মান্তিক ভয়াবহতার পর সমগ্র দেশ যখন থমকে দাড়িঁয়ে ঠিক তখনই আসন্ন ইউপি নির্বাচন।আমার এলাকাটিতেই অনেক মানুষ বিভিন্ন সমস্যায় জর্জড়িত এবং বিশেষ করে তরুণ সমাজ ধ্বংসে মুখে।আমি ব্যক্তিগতভাবে যতটুকু পেরেছি,ততটুক সাহায্য -সহযোগীতার চেষ্টা করেছি।আর সকলের পাশে দাড়িঁয়ে সহযোগীতা এবং আমার এলাকাটির উন্নয়ন করার একরাশ ইচ্ছা মনে।তারঁই ধারাবাহিকতায় দীর্ঘমেয়াদী ও ব্যাপকভাবে অসহায় ও সর্বস্তরের মানুষের পাশে দাড়াঁনোর জন্য আসন্ন মুছাপুর ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসেবে আমাকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনীত জন্য সকলের নিকট সহযোগীতা ও দোয়া কামনা করছি।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •