হোসেনপুর বাজারে সন্তান প্রসব করা সেই নারী ইউএনওর সহায়তায় ফিরলেন বাড়িতে

মোঃ এমদাদুল হক, স্টাফ রিপোর্টার।

কিশোরগঞ্জ জেলার, হোসেনপুর উপজেলায়, পুমদী ইউনিয়নের রামপুর বাজারে মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারী ১২ জুলাই সকালে পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। এ খবর শুনে ছুটে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাবেয়া পারভেজ। তিনি অজ্ঞাত ওই নারীর নবজাতককে কোলে তুলে নেন। তাদের চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

পরবর্তীতে হোসেনপুর উপজেলা প্রশাসন খোঁজ করতে থাকেন মানসিক ভারসাম্যহীন ওই নারীর পরিচয়। ওই নারীর দেওয়া তথ্যমতে খোঁজ নেওয়া হয় বরিশালে। সেখানে বানারীপাড়া ও আগৈলঝড়া উপজেলা প্রশাসন ও বরিশাল পুলিশের সহায়তায় খোঁজ মেলে পরিবারের।

মানসিক ভারসাম্যহীন ওই নারীর নাম পারভীন। তার স্বামী আব্দুল মালেক ঢাকায় রিকশা চালান। রোববার (১৮ জুলাই) স্বামীর হাতে স্ত্রী ও সন্তানকে বুঝিয়ে দেয় উপজেলা প্রশাসন

হোসেনপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাবেয়া পারভেজ জানান, এটা আমাদের জন্য খুবই কঠিন জার্নি ছিল। কারণ ওই নারী এর মাঝে একবার পালিয়েও গিয়েছিল। পরে আবার থাকে ধরে আনা হয়। সেখানে আবার সে আত্মহত্যার হুমকিও দেয়। তাকে পাহারা দিয়ে রাখার চ্যালেঞ্জের সঙ্গে সঙ্গে তার কাছ থেকে তথ্য বের করা, তার ফোন নম্বর বের করাও ছিল কঠিন কাজ।তার স্বামীর ফোন নম্বর বের করে যোগাযোগ করা হলে, জানা যায় তার বাড়ি বরিশালে। কিন্তু তিনি ঢাকায় রিকশা চালান।

আমি কয়েক দফা তার সঙ্গে ফোনে কথা বলেছি। বরিশালের ভাষা বুঝি না, কথা বুঝাতে পারি না, আমি যে ইউএনও এটাও তাকে বুঝাতে পারিনি।অবশেষে সে তার ম্যানেজারের কাছে ফোন দিলে কিছুটা সহজ হয়েছে যোগাযোগ। কিন্তু দীর্ঘ দিন তারা গ্রামের বাড়ি থাকেন না। তার পরিবারকে খুঁজে বের করতে আমাদের আন্তরিকতার কোনো ঘাটতি ছিল না। পরে রোববার স্বামী তার স্ত্রী ও সন্তানকে নিতে এলে তার হাতে বুঝিয়ে দেয় উপজেলা প্রশাসন।