কিশোরগঞ্জে ২৪ ঘন্টায় ৯৫ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ১

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি :
দিনে দিনে কিশোরগঞ্জে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বেড়েই চলছে।
কিশোরগঞ্জে করোনায় নতুন ১ জন মারা গেছেন। সর্বশেষ মারা যাওয়া ব্যক্তি করিমগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। তিনি ৬৩ বছর বয়সী ১ জন পুরুষ। বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) রাত ৩ টার দিকে তিনি কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। কিশোরগঞ্জের ছয়টি কেন্দ্রে নমুনা পরীক্ষায় ২৪ ঘন্টায় নতুন করে মোট ৯৫ জনের করোনা সংক্রমন শনাক্ত হয়েছে।একই সময়ে নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ৩২ জন।সুস্থরা হলেন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ২১ জন,তাড়াইল উপজেলায় ৪ জন,পাকুন্দিয়া উপজেলায় ৪ জন,বাজিতপুর উপজেলায় ৩ জন।সিভিল সার্জন ডা:মো:মুজিবুর রহমান শুক্রবার (২ জুলাই ) রাতে জানিয়েছেন,কিশোরগঞ্জ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ল্যাবে আংশিক ১৮৮ টি নমুনা পরীক্ষায় নতুন ৮৫ জনের নমুনা পজেটিভ এসেছে এবং পুরনো ৯ জনের নমুনা পজেটিভ এসেছে।নেগেটিভ হয়েছে ৯৪ টি নমুনা। আর বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৯১ টি নমুনা পরীক্ষায় নতুন ৪ জনের নমুনা পজেটিভ এসেছে।নেগেটিভ হয়েছে ৮৫ টি নমুনা।কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল,কুলিয়ারচর,ভৈরব ও ইটনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেপিড এন্টিজেন টেস্টে ৪৬ টি নমুনা পরীক্ষায় নতুন ৬ জনের নমুনা পজেটিভ এসেছে।নেগেটিভ হয়েছে ৪০ টি নমুনা
নতুন আক্রান্তের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৬৩ জন,করিমগঞ্জ উপজেলায় ৩ জন,তাড়াইল উপজেলায় ৩ জন,পাকুন্দিয়া উপজেলায় ৩ জন,কুলিয়ারচর উপজেলায় ৫ জন,ভৈরব উপজেলায় ৯ জন,নিকলী উপজেলায় ১ জন,বাজিতপুর উপজেলায় ৫ জন,ইটনা উপজেলায় ২ জন ও মিঠামইন উপজেলায় ১ জন রয়েছেন। বর্তমানে কিশোরগঞ্জ জেলায় ৮৮৪ জন করোনা ভাইরাসে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। কিশোরগঞ্জ জেলা এ পযর্ন্ত করোনা ভাইরাসে ৯০ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।
এ পযর্ন্ত কিশোরগঞ্জ জেলায় মোট ৬ হাজার ১৪৯ জনের দেহে ভাইরাসটির সংক্রমণ নিশ্চিত হয়েছে। আর করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ১৭৫ জন।শুক্রবার (২ জুলাই )পযর্ন্ত জেলায় করোনার টিকার জন্য নিবন্ধন করিয়েছেন ১ লাখ ২৭ হাজার ৪৮১ জন আর প্রথম ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন ৭৬ হাজার ৬৬৫ জন।গত ১৯ জুন থেকে সাইনোফার্ম ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ দেয়া শুরু হয়েছে।এ পযর্ন্ত মোট ১১৭৫ জন সাইনোফার্ম ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ টিকা নিয়েছেন।গত ২৪ ঘন্টায় কেউ সাইনোফার্ম ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ নেননি। দ্বিতীয় ডোজ টিকা গ্রহন করেছেন ৫৯ হাজার ৩০৭ জন।গত ২৪ ঘন্টায় কেউ ২য় ডোজ টিকা নেননি।