বন দখলে বাধা দেওয়ায় বৃদ্ধের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার :গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার নলুয়া নামক এলাকায় সরকারী বনের জমিতে ঘর নির্মাণে বাধা দেওয়ায় উপকারভোগীদের সভাপতি শামসুল হক (৭০) বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছে এক নারী। পরে ভূমি দস্যুরা ওই সভাপতিকে বেধম মারধর করে। এ ঘটনায় শামসুল হক বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নলুয়া এলাকার কদ্দুস খানের ছেলে আলমগীর (৩২) সরকারী উডলট বনের জমি দখল করে ঘর নির্মানের চেষ্টা করে। ওই বনের ৫০ হেক্টর উডলট বনের উপকারভোগীদের সভাপতি শামসুল হক (৭০) বোয়ালী বিট কর্মকর্তাকে খবর দেয়। খবর পেয়ে বিট কর্মকর্তা বন দখলে বাধা দেয়। ক্ষিপ্ত হয়ে আলমগীর, ওই এলাকার গোলাম আলী (৪০), আক্কেল আলী (৩৫), শাহআলম (২৮), শামসুল মুন্সী (৫০) সহ দলবল নিয়ে বৃদ্ধ শামসুল হককে বেধম মারধর করে। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়। পরে ওই সভাপতিকে কোনঠাসা করতে আলমগীর নিজের স্ত্রী সালমা (২৯) কে দিয়ে কালিয়াকৈর থানায় ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ দেয়। এ ব্যাপারে বোয়ালী বিট কর্মকর্তা বলেন, আলমগীরের ঘর দখলের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়েছি।এ ব্যাপারে সালমা বলেন, শামসুল আমাকে অনেকবারই কু প্রস্তাব দিয়েছে। সে বনের দালাল। আমাকে বলেছে যদি তার কু প্রস্তাবে রাজি না হই তাহলে বনের জমিতে ঘর করতে দিবেনা। এ ঘটনায় শামসুল হক বলেন, আমি বনের জমি দখলে বাধা দেওয়ায় পরিকল্পিতভাবে আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে।দুই অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই রফিকুল ইসলাম বলেন, দুটি অভিযোগেরই তদন্ত চলছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।