কাশিমপুরে শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে গ্রেফতার ১

26

মোঃ মোওাসিম সিকদার রাজীব 
গাজীপুর জেলা সংবাদদাতা: গাজীপুরের কাশিমপুরে শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকার (যৌন নির্যাতন) করার অভিযোগে পুলিশ কারী শাহিদুল ইসলাম (৫০) নামে এক মাদ্রাসাশিক্ষককে গ্রেফতার করেছে।

গতকাল রাতে ঘটনাটি জানাজানি হলে অভিভাবকদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আজ সকালে কাশিমপুর মেট্রোপলিটন থানা পুলিশ  সদর থানা পুলিশ 5 নং ওয়ার্ড এর সূরা বাড়ি এলাকা থেকে সুরাবাড়ি দাঃ উঃ নূরানী ও হাফেজিয়া কওমি মাদ্রাসা থেকে ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, শিক্ষক কারী সাহিদুল ইসলাম ইসলাম (৫০), রহিদপুর গ্রামের, কেরানীগঞ্জ, ঢাকা স্থানীয় বাসিন্দা। গত ০৫/১০/২১ বুধবার রাতে বোর্ডিংয়ে থাকা আশরাফুল তালুকদার (১২), হাত পা টিপার কথা বলে এক সময় জোরপূর্বক ভাবে শিশুকে বলাৎকার করেন।

এবং শিশুটিকে এ ঘটনা প্রকাশ না করতে ভয় দেখানো হয় । গত কয়েকদিন যাবত শিশুটি  মাদ্রাসায় যেতে আপত্তি করে। এতে অভিভাবকদের মনে সন্দেহের সৃষ্টি হয়। তারা কারণ জানতে চাইলে একপর্যায়ে শিশু তার মায়ের কাছে হুজুর শাহিদুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে তাদের বলাৎকারের অভিযোগ করে।

গতরাতে ঘটনাটি জানাজানি হলে অভিভাবকদের মাঝে প্রচণ্ড ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তারা হুজুরকে গ্রেফতার ও তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আজ সকালে মাদ্রাসা ঘেরাও করার প্রস্তুতি নেন। খবর পেয়ে কাশিমপুর মেট্রোপলিটন থানা পুলিশ মাদ্রাসায় যায়। এ সময় শিশু শিক্ষার্থী হুজুরের বিরুদ্ধে তাদের বলাৎকারের অভিযোগ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করে।কাশিমপুর-কোনাবাড়ী জোন এর সহকারী পুলিশ কমিশনার  (এসি) বেলাল হোসেন ও কাশিমপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুবে খোদা ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর জানান, সমকামী মানসিকতার শিক্ষক কারী শাহিদুল ইসলাম গত বুধবার ছাত্রকে বলাৎকার করেছেন বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন । শিশুর স্বীকারোক্তিতে এর সত্যতা মিলেছে।অভিভাবকরা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ৯ এর ১ ধারায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন ।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •