পদ্মায় প্রবল স্রোত,ফেরি পারাপারে লাগছে দেড়গুন সময়

এস.এম.দেলোয়ার হোসাইন, মাদারীপুর :পদ্মায় পানি বেড়েছে, সঙ্গে বেড়েছে স্রোতের গতিবেগ। এতে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচলে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি সময় লাগছে। যাওয়া-আসা নিয়ে একেকটি ফেরিতে এক ঘণ্টার বেশি সময় লাগছে। তা ছাড়া ডাম্প ফেরিগুলো স্রোত উপেক্ষা করে চলতে পারছে না।
শনিবার চারটি রো–রোসহ মোট ৮ টি ফেরি চলাচল করছে। ফেরি চলাচলে সময় বেশি লাগায় ঘাট এলাকায় পারাপারের অপেক্ষায় থাকা যানবাহনের সংখ্যা কিছুটা বেড়েছে। তবে ঘাট এলাকায় বাড়তি চাপ নেই।ঘাট সূত্র জানায়, নদীতে স্রোত বাড়ায় ফেরি চলাচলে গতি কমেছে। পদ্মা সেতু পার হয়ে মূল পদ্মায় প্রবেশ করলে তীব্র স্রোতের মুখে পড়তে হচ্ছে ফেরিগুলোকে। স্রোত উপেক্ষা করে নদী পার হতে স্বাভাবিকের চেয়ে দেড়গুণ সময় বেশি লেগে যাচ্ছে। রো–রো ফেরি পদ্মা পার হতে সময় নিচ্ছে দেড় ঘণ্টার বেশি। স্বাভাবিক সময়ে রো–রো ফেরিতে এক ঘণ্টা লাগত পদ্মা পার হতে। এ ছাড়া ডাম্প ফেরিতে স্রোত ঠেলে পদ্মা পার হতে সময় লাগছে দুই ঘণ্টা। পূর্বে দেড় ঘণ্টা সময়েই পদ্মা পার হতে পারত। সময় বেশি লাগায় পণ্যবাহী ট্রাক ও জরুরি যানবাহন শিমুলিয়া ঘাটে আটকে পড়েছে। ঘাট সূত্র আরও জানায়, শনিবার সকাল থেকে শিবচরের বাংলাবাজার ঘাটে যানবাহনের তেমন কোনো চাপ নেই। ঢাকাগামী যাত্রীদেরও চাপ নেই। পণ্যবাহী ট্রাক পার হচ্ছে। এ ছাড়া কাভার্ড ভ্যান, অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, ঘাটে কোনো চাপ নেই। তবে স্রোত বাড়ায় ফেরি চলতে স্বাভাবিকের চেয়ে সময় বেশি লাগছে। পণ্যবাহী ট্রাক আর জরুরি যানবাহন পার বেশি হচ্ছে। যাত্রীদের চাপ নেই।
বাংলাবাজার ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (টিআই) মো. জামালউদ্দিন বলেন, বাংলাবাজার ঘাটে সকালের দিকে আটকে থাকা পণ্যবাহী ট্রাকগুলো পার হয়ে গেছে।