দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে জঙ্গী সংগঠনের সক্রিয় ৩ সদস্যকে গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ফরিদপুর, জামালপুর থেকে নিষদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন ‘আনসার আল ইসলাম’ ৩ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪

এপ্রিলে র‌্যাব-৪ কর্তৃক গ্রেফতারকৃত “আনসার আল ইসলাম” ১ সক্রিয় সদস্য থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ১৮ জুনে থেকে গত শনিবার ( ১৯ জুন) পর্যন্ত র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল ফরিদপুর জেলার সদর থানার রঘুনন্দপুর এলাকা এবং জামালপুর জেলার মোলান্দহ থানার এলাকায় অভিযান চালিয়ে মোঃ নূরে আলম (১৮),ইয়ার হোসেন (২৩) ও মোঃ লাঞ্জু মিয়া ওরফে মোঃ আবু বকর (১৭) নামের তিন জনকে গ্রেফতার করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৪ টি উগ্রবাদী বই, লিফলেট এবং জঙ্গিবাদী কথপোকথনের প্রমানসহ উদ্ধার করে বলে জানান র‍্যাবের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( মিডিয়া) মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম সজল।

 

মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম সজল আরো জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন ‘‘আনসার আল ইসলাম’’এর সদস্য বলে স্বীকারোক্তি প্রদান করেছে। তারা ধর্মীয় ব্যাখ্যা বিকৃত করে ধর্মপ্রাণ মানুষদেরকে বিভ্রান্ত করায় সক্রিয় ছিলো। উল্লেখ্য যে, তারা সাধারণত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে চরমপন্থার উস্কানি দেওয়ার প্লাটফর্ম হিসাবে ব্যবহার করে আসছিলো।

মোঃ নূরে আলম (১৮) কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে,ওয়েল্ডিং পেশায় প্রশিক্ষনরত একজন ছাত্র । সে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন বেনামী আইডি ব্যবহার করে “আনসার আল ইসলাম” এর সদস্যেদের সাথে ০২ বছর যাবৎ গোপনে যোগাযোগ করে আসছিল।

ইয়ার হোসেন (২৩)’কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় একটি বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে এইচএসসি সম্পন্ন করে বর্তমানে একজন দলিলনবিশ। সে গত ০৩ বছর ধরে “আনসার আল ইসলাম” এর সক্রিয় সদস্য হিসেবে কাজ করছে।

মোঃ লাঞ্জু মিয়া ওরফে মোঃ আবু বকর (১৭)’কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ছাত্র । গত ০২ বছর ধরে “আনসার আল ইসলাম” এর সদস্যেদের সাথে যোগাযোগ করে আসছিল।

জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায় গ্রেফতারকৃত সদস্যরা আনসার আল ইসলামের অন্যান্য সদস্যদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ স্থাপনের পাশাপাশি নতুন সদস্যদের উদ্ধুদ্ধকরণের জন্যে অনলাইনে বিভিন্ন উগ্রবাদী লেখালেখি ও ভিডিও প্রচার এবং নিয়মিত চাঁদা সংগ্রহ করে আসছিলো।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি অন্যান্য সহোচরদের গ্রেফতারে র‌্যাব এর গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রয়েছে।