লক্ষ্মীপুরে প্রবাসীর স্ত্রীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার থানায় অভিযোগ

17

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরে রায়পুর উপজেলার ৮নং দক্ষিণ চরবংশী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের গ্রাম চর লক্ষী বেপারি বাড়ির মৃত মোঃ ইসমাইল বেপারী ছেলে গিয়াস উদ্দিন এর বিরুদ্ধে ঝরনা বেগম
স্বামীর প্রবাসী সাথে মটু ফোনে কথা বলার ভয়েস রেকর্ড করে এলাকায় বাজারে দোকানে পথে-ঘাটে অপপ্রচার করার অভিযোগে এই নিয়ে রায়পুর থানায় প্রবাসীর স্ত্রীর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। একই বাড়ির প্রবাসী মনির হোসেনের স্ত্রী ঝরনা বেগম অভিযোগ করে বলেন আমি আমার স্বামী মনির হোসেন সাথে আমার বসত ঘরে মোবাইল ফোনে কথা সময় গিয়াস উদ্দিন ঘরের পাশে দাঁড়িয়ে গোপনে আমার আর স্বামীর কথা ভয়েস রেকর্ড করে এই নিয়ে আমাকে বিভিন্ন ধরনে খারাপ কাজের কু-প্রস্তাব দেয় আমি তার কথায় রাজী না হওয়া আমার প্রবাসী স্বামী সাথে কথা বলার গোপনে করা ফোন রেকর্ডিং টা এলাকায় প্রচার করে।
স্থানীয়, গনি ব্যাপারী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জানান, গিয়াস উদ্দিনের একাধিক বার সালিশ করেছি সেই প্রথমে একটি ছাগলের সাথে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হয় সেই সালিশ বৈঠকে ৫০০০/ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এর পর তার নিজের মেয়ে সাথে অনৈতিক কাজে করে এর পরে তার ছেলে বউ সাথে একাধিক বার ধর্ষণ করেন এর পর কবিরের স্ত্রী রায়পুর থানায় মামলা দায়ের করেন ওই মামলার ২ বছর সাজা হয় ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন তিনি জানান, গিয়াসউদ্দিনের একাধিক সালিশ আমি করেছি এই বিষয় নিয়ে আমার কাছে অভিযোগ এসেছে উভয় পক্ষ আমার অফিসে এসো আমি কথাবার্তা শুনে সমাধান করে দেব এরপর তারা আসেনি
সরেজমিনে গেলে গিয়াস উদ্দিনের বিরুদ্ধে উঠে এসে নানান অভিযোগ অভিযোগ করে এলাকাবাসী মাইনুদ্দিন, রাসেল, জেসমিন আক্তার, নুরজাহান, বেগম হজল গাজী, শাহিনুর, মুরাদ ড্রাইভার, বেগম জান, সহ অনেকেই বলেন, গিয়াস উদ্দিন লোক টা খারাপ সেই এলাকায় বিভিন্ন ধরনের অসামাজিক কাজ করায় তার পেশা তার বিরুদ্ধে রয়েছে এলাকায় অসামাজিক কাজের অভিযোগে রয়েছে এলাকায় তার বিরুদ্ধে পাগলী পুত্রবধূ নিজ মেয়ের পিপি এ দিকেও খারাপ দৃষ্টি সহ আরো বহু অনৈতিক কাজের অভিযোগ।গিয়াস উদ্দিনের মানসিক প্রতিবন্ধী ছেলে মোকবির হোসেন বলেন আমি দুটি বিবাহ করেছি আমার প্রথম স্ত্রী আমাকে কিছু না বলে তার বাপের বাড়ি চলে গেছে কেনো গেছে আমি তা জানি না আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করে আমার বাবা কে আর আমাকে জেল খাটিয়েছেন আমার বাবা মা আমাকে দ্বিতীয় বিয়ে করায় কিছু দিন আগে আমরা স্ত্রী বাপের বাড়ি গেছে আমার সাথে যোগাযোগ করে না
এই সব অভিযোগ অস্বীকার করে গিয়াস উদ্দিনের স্ত্রী বলেন সব ষড়যন্ত্র গিয়াস উদ্দিন কাছে জানতে চাইলে ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন অভিযোগগুলো মোটেও সত্য নয় ঝরনার কি ভয়েস রেকর্ডটা দেখতে চাইলে আবারো ক্ষিপ্ত হয়ে গিয়াস উদ্দিন বলেন ঝরনা বেগম অভিযোগ করেছেন আমি এগুলো থানায় জমা দিয়ে দিয়েছি ।
হাজিমারা পুলিশ ফাঁড়ি এই বিষয়ে জানতে চাইলে এস, আই, মিজান তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •