রায়পুরে শিক্ষার্থীকে অপরণ করে তুলে নিয়ে ধর্ষণ : দু’দিন পর উদ্ধার আটক ১ 

8

নিজস্ব প্রতিনিধি: 
লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ষষ্ঠ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে অপরণ করে তুলে নিয়ে ধর্ষণ অভিযোগ উঠেছে ব্যবসায়ী মো: সাগর এর বিরুদ্ধে। ঘটনার দু’দিন পর শনিবার দিবাগত রাতে নোয়াখালীর বারাইপুর গ্রাম থেকে ভিকটিমকে উদ্ধারসহ ধর্ষকদের মধ্যে কে গ্রেপ্তার করা হয় জানিয়েছেন পুলিশ। এছাড়া ভিকটিমকে উদ্ধারের পর রোববার দুপুরে শারিরীক পরীক্ষার জন্য লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ ও গ্রেপ্তারকৃত সাগরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজাতে প্রেরণ করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত সাগর নোয়াখালীর সুধারাম থানার বারাইপুর গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে।

 সদর হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: আনোয়ার হোসেন জানান, রায়পুর থেকে এক ভিকটিমকে পুলিশ নিয়ে আসার পর শারিরীক পরীক্ষা করা হয়। পরে ভিকটিমকে আবার পুলিশ হেফাজতে দেওয়া হয়। 

রায়পুর থানা পুলিশ জানান,গত বৃহস্পতিবার সকালে রায়পুর বামনী উচ্চ বিদ্যায়য়ে যাওয়ার পথে ষষ্ঠ শ্রেণির ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায় মো: সাগরসহ কয়েকজন যুবক। এ এঘটনায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে এক জনের নাম উল্লেখসহ তিনজনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে রায়পুর থানায় অপহরণ ও ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে নোয়াখালীর বারাইপুর গ্রামের গোফরান দেওয়ানের বাড়ী থেকে ভিকটিমকে উদ্ধারসহ ধর্ষক মো: সাগরকে গ্রেপ্তার করে রায়পুর থানায় নিয়ে আসে। এছাড়াও অন্য আসামীদের গ্রেপারের জন্য পুলিশের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। 

রায়পুর থানার ওসি আব্দুল জলিন জানান, ষষ্ঠ শ্রেণির এক শিক্ষাথর্ীকে অপরণ ও ধর্ষনের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ভিকটিমের মা এ ঘটনায় এক জনের নাম উল্লেখসহ চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধারসহ ধর্ষক সাগরকে গ্রেপ্তারের পর আদালতে প্রেরন করা হয়। এছাড়া ভিকটিমকে হাসপাতালের মাধ্যমে শারিরীক পরীক্ষা শেষে আাদালতের মাধ্যমে তার মায়ের নিকট পৌছে দেওয়া হয়। এছাড়া অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্ঠা চলছে বলে জানান এ কর্মকর্তা।  

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •