আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য : মুখোশ পরিহিত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী নিয়ে জমি দখল নিতে হামলা আহত ৩

চকরিয়া,প্রতিনিধিঃ
কক্সবাজারের চকরিয়ায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ১৪পরিবারের বন্দোবস্তিকৃত জমি দখল নিতে মুখোশ পরিহিত স্বশস্ত্রধারী ভাড়াটিয়া মাস্তান নিয়ে হামলা চালায় ভূমিদস্যূ শামশু উদ্দিন।এতে মহিলাসহ আহত-৩জন।স্হানীয়রা জানান,যেকোন সময় প্রাণের নাশের ঘটনা ঘটনার সম্ভাবনা বিদ্যমান।বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টার সময় উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের কালিয়া ঘোনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

আহতরা হলেন,শাহেনা বেগম (৪০),অত্র ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের উত্তর ফুলছড়ী এলাকার আবুল কাশেমের স্ত্রী,তহমিনা বেগম(৪২) একই ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের গর্জনতলী এলাকার মৃত নুরুল আলমের স্ত্রী ও নুর নাহার বেগম(৫০) একই ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের হেতালিয়া পাড়া মূছা আলমের স্ত্রী।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে,মেদাকচ্ছপিয়া মৌজার বি.এস-১নং খতিয়ান থেকে ৫০ কানি নাল জমি বন্দোবস্তি নেওয়া ১৪ পরিবারের পক্ষে অত্র ইউনিয়ন ৩নং ওয়ার্ডের হেতালিয়া পাড়ার মৃত ফজলর রহমানের ছেলে মুছা আলম বাদী হয়ে গত ১৫ ফ্রেরুয়ারী কক্সবাজারের অতিরিক্ত ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত এর এম.আর মামলা নং-৫২৪/২১ইং মূলে মামলা দায়ের করলে,বিজ্ঞ আদালত উক্ত আবেদনের উপর ফৌঃকাঃবিঃ-১৪৪ ধারা বিধি নিষেধ জারি করেন ।উক্ত মামলাতে ভূমিদস্যু শামশু উদ্দিন সহ ৪জনকে বিবাদী করা হয়েছিল।সৃজিত বি.এস খতিয়ান নং-২৪৬,২১৯,২১১,২৪৫,২০৯,২০৮,২১৪,২১৮,২১৭,২১৬ ও ২১৩
ঘটনার বিষয়ে মামলার বাদী মুছা আলম জানান,আমি অসুস্থ জেনে ভূমিদস্যু মামলার বিবাদী আমার একই গ্রামের মৃত নুর হোসেনের ছেলে শামশু উদ্দিন ভাড়াটিয়া স্বশস্ত্রধারী মাস্তান নিয়ে জমি দখল করে চাষ করতে আসে।এখবর পেয়ে আমি বন্দোবস্তির অপারাপর মালিকগণকে খবর দিই।এতে কাছে থাকা কয়েকজন জমির মালিকের স্ত্রীরা দ্রুত আসে।তখন তারা জমিতে গিয়ে তাদেরকে বাঁধা দিলে সাথে-সাথে তাদেরকে মারধর করে।পরে থানা পুলিশকে খবর দিই।পুলিশ আসছে শুনে শামশু উদ্দিন তার বাহিনী নিয়ে পালিয়ে যায়। চকরিয়া থানার এসআই মুজিব বলেন,জমির এক মালিক থানায় খবর দেন যে,তাদের জমি দখল নিতে কিছু লোক হামলা চালাচ্ছে।তাই পুলিশ ঘটনা স্হলে যাওয়ার খবর পেয়ে জবর দখলকারীরা পালিয়ে গেছে শুনেছি।কিন্তু জবর দখলকারীরা যে আসছি এরকম ভিডিও ছবি দেখে নিশ্চিত হলাম,সংবাদটি সত্য।