চন্দনাইশে চোরাই গরুসহ আটক- ৫

11

চন্দনাইশ উপজেলা সংবাদদাতা:
চন্দনাইশ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১টি চোরাই গরুসহ ৫ গরু চোরকে আটক করে। গতকাল ২৩ নভেম্বর, চন্দনাইশ উপজেলার বাগিচাহাট এলাকায় চোরাই গরুসহ গরু ব্যবসায়ী গোলাপুর রহমান (৫০)কে আটক করে।
স্থানীয়ভাবে জানা যায়,সাতবাড়িয়া পালপাড়ার মিন্টু পাালের ৭০ হাজার টাকা মুল্যের গাভী গত ১১ নভেম্বর রাতে চোরেরদল চুরি করে নিয়ে যায়। মামলার অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,পূর্ব সাতবাড়িয়ার ছাদেকপাড়ার আবদুল লতিফের ছেলে জাফর হোসেন (৩৫) রাতে গরুটি চুরি করে নিয়ে যায়। পরে দোহাজারী পৌরসভার খাগরিয়ার চরের আবু ছৈয়দের ছেলে মো.পারভেজ (৩৫) ও আবুল কালামের ছেলে বাবুলের নিকট ৩৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে। একই গরু তারা সাতকানিয়ার রহমত পাড়ার আমিরখীলের মৃত ছিদ্দিক আহমদের ছেলে আহামদুর রহমান (৬১) নিকট ৬৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে। উল্লেখ্য যে আহমদুর রহমান পারভেজের শ্বশুর। আহামদুর রহমান ৬৫ হাজার টাকায় গরু ব্যবসায়ী গোলাপুর রহমানের নিকট গরুটি পুনরায় বিক্রি করে। গোলাপুর রহমান গত ২২ নভেম্বর বিকালে গরুটি পুনরায় বিক্রি করার জন্য বাগিচাহাট আসলে গরুর মালিক মিন্টু পাল গরুটি দেখে থানায় খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে প্রথমে গরু ব্যবসায়ী গোলাপুর রহমানকে আটক করে। তার স্বীকারোক্তি মতে গত ২৩ নভেম্বর রাতভর অভিযান চালিয়ে গরু চুরির সাথে সম্পৃক্ত আহামদুর রহমান, বাবুলের পিতা আবুল কালাম,মো. পারভেজ,জাফর হোসেনসহ ৫ জনকে আটক করে। এব্যাপারে গরুর মালিক মিন্টু পাল বাদি হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আসামী করে চন্দনাইশ থানায় মামলা দায়ের করে। সে মামলা আটককৃত আসামীদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে গতকাল ২৩ নভেম্বর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন থানা অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দিন সরকার।

নিউজটি শেয়ার করুন...