বাইশারীতে কোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাতে জমি দখল করতে বহিরাগতদের হামলা

7

নিজস্ব প্রতিনিধিঃবান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারীতে কোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাতের আঁধারে জমি দখল নিতে মরিয়া ভিন জেলার একদল ভূমিদস্যূ। তারই ধারাবাহিকতায় তারা বুধবারও দা,ছবীন,লোহাররড় সহ হামলা করে নিরহ কৃষকের রাবার চাষির খামার বাড়িতে। তবে রাবার মালিক আবদুল জলিলের নেতৃত্বে প্রতিরোধ গড়ে তোলায় ব্যর্থ হয় বহিরাগত এ সব হামলাকারীরা। এতেও তারা কান্ত হননি তারা এখন নাটক সাজিয়ে মিথ্যা মামলা করতে থানা পুলিশে দৌঁড়ঝাপ শুরু করছে এ মামলাবাজরা। যার নাটেরগুরু রামু উপজেলার গর্জনিয়ার বড়বিলের ফিরোজ মেম্বার। আর এ সব ঘটনায় সরাসরি জড়িত ফিরোজ মেম্বারের প্রতিবেশী মৃত কালা মিয়ার পুত্র বদিউল আলম গং।জমির মালিক আবদুল জলিল জানান,তিনি বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ি উপজেলার নারিচবুনিয়া গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা। আর বদিআলম-ফিরোজ মেম্বার গংরা ককসবাজার জেলার গর্জনিয়ার বড়বিল গ্রামের বাসিন্দা। তারা পেশাদার ভূমিদস্যূ ও কাঠচোরাইকারবারী। এছাড়া বর্তমানের চাইতে আরো বড় লোক হওয়ার জন্য লোলুপদৃষ্টি দেয় ২৮৩ নং আলিক্ষ্যং মৌজার মারবা খাইয়া ঝিরি ও বাঁকখালী নদীর পার্শবর্তী তার তৃতীয় শ্রেণির ২৫ একর এ জমির উপর। তারা চেষ্টা করে এ জমি কিনে নিতে পারে নি কারণ জলিল রাজি হয় নি এতে । কেননা তারা অন্য জেলার লোক। আইনত তাদেরকে জমি বিক্রি করা যাবেনা। ব্যর্থ হয়ে তারা এ জমিটি দখলে নিতে ভিন্ন কৌশল নিয়ে হেডম্যানের স্বাক্ষরজাল করে একটি রিপোর্ট বানায়। যা তাদের একমাত্র ডকুমেন্ট। যা নিয়ে তারা তার এ জমিটি দখলে নিতে চেষ্ট করে আসছিলো। আর তাই তিনি চলতি বছরের ৬ জুন বান্দরবান বিজ্ঞ চীপ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেড আদালতে।যে মামলার সর্বশেষ অবস্থান প্রতিপক্ষকে বিবাদীরা ( ফিরোজ মেম্বার-বদিউল আলম গং) যেন সে জমিতে না যান। কিন্তু তারা কোর্টের সে নিষেধাজ্ঞাও মানতে রাজি না। কেননা তাদের গ্যাং লিডার ফিরোজ মেম্বার বহুল আলোচিত ও সশস্ত্র গ্রুপের প্রাক্তন সদস্য। বদিউল আলমও। এ কারণে তারা ডেমকেয়ার। তাদের মানুষ ভয় পায়। জলিল আরো জানান, ভূমি দস্যুরা জঘণ্যতম মিথ্যায় মামলাবাজও।এসবকিছু পূজিঁ করে বারবার ব্যর্থ হয়ে অবশেষে রাতের আধাঁরকে সম্বল করে এ জমিটি দখলে দলবল সহ হামলা করে। যা প্রকাশ্যে-গোপনে তদন্ত করলে বেরিয়ে আসবে।
নিরীহ আবদুল জলিল থানার অফিসার ইনর্চাজ নিজেই এ ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট কাগজ-পত্র যাচাই-বাচাই করে দোষী কে শাস্তি দেওযার ব্যবস্থা নিতে জোর দাবী জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •