বিজয়নগরে প্রশাসনের ২০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

5

সোহেল সরকার,ব্রাহ্মণবাড়িয়া েজেলা সংবাদদাতাঃ
বিজয়নগরে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বন্যা কবলিত পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার হরষপুর ইউনিয়নের এক্তারপুর গ্রামের বন্যা কবলিত ২০টি পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ শুরু করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ,এইচ, ইরফান উদ্দিন আহমেদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহীনুর জাহান, হরষপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সারুয়ার আলমসহ এলাকার লোকজন। ত্রাণ সামগ্রীর মধ্যে ছিল ১০ কেজি চাল,১ কেজি তেল,১ কেজি ডাল,১ কেজি লবণ, ১ কেজি চিনি,গুরা মরিচ,হলুদ, ধনিয়ার গুড়া সহ মোট ১৪ কেজি ৪০ গ্রাম খাদ্য সামগ্রী। জানা যায়, তিতাস নদী এবং কাজলা বিলের পানি অব্যাহত ভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় তলিয়ে যায় বিজয়নগর উপজেলার ৩০টি গ্রাম। অব্যাহত পানি বৃদ্ধি হওয়ায় তলিয়ে গেছে কৃষকের জমি, ঘর বাড়ি,স্কুল ও ফসলী জমি ভেসে গেছে পুকুরের মাছ। রাস্তাঘাটও তলীয়ে গেছে। পানি বন্দি অবস্থায় আছে কয়েক হাজার মানুষ।এক্তারপুর গ্রামের আশ্রয়ন প্রকল্পের ১১পরিবারের পানিবন্দী হয়ে পরে।আয় উপার্জনের পথ বন্ধ হয়ে চরম দূর্ভোগে পরেছে বন্যা কবলিত মানুষেরা।ত্রাণের জন্য হাহাকার শুরু করছে পানীবন্দী মানুষ। পানিতে ডুবে আছে গ্রামের পর গ্রাম,ত্রাণের জন্য হাহাকার এই শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর থেকেই নরে চরে বসে উপজেলা প্রশাসন। আজ বৃহষ্পতিবার সকালে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ত্রাণ কার্যক্রম শুরু করে মাত্রগুটি কয়েক পরিবারের মাঝে।এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ এইচ ইফরান উদ্দিন আহমেদ এর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
উল্লেখ্য উপজেলা প্রশাসন বন্যার খোজ খবর নেয় এবং প্রত্যেক ইউনিয়নে ১ জন ট্যাগ অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে মানুষের জান মালের কথা বিবেচনা করে ২৮টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুুত করে রেখেছ উপজেলা প্রশাসন।
এব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহীনুর জাহান বলেন,আজ থেকে আমরা হরষপুর ইউপি’র এক্তারপুর গ্রামে ত্রাণ সামগ্রী বিতরন করেছি।আজ থেকে ত্রাণ বিতরন শুরু করছি পর্যায় ক্রমে সকল এলাকায় বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরন করা হবে।