প্রতিপক্ষের কাছে খাবার বিক্রি করায় এবার গালমন্দ করে রেস্তোরাঁয় তালা দিলেন কাদের মির্জা

0

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার নেতৃত্বে বসুরহাটের ফেন্সী হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টে তালা মেরে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রোববার (২৯ আগস্ট) বিকেল ৫টার দিকে আবদুল কাদের মির্জার নেতৃত্বে ফেন্সী হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কাদের মির্জার স্থানীয় রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তাঁর ভাগনে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের মুখপাত্র মাহবুবুর রশিদ মঞ্জুর বাসায় তার অনুসারীরা এলে প্রায় ফেন্সী হোটেল থেকে খাবার কিনে নেয়া হয়। প্রতিপক্ষের নেতার বাসায় খাবার বিক্রি ও সরবরাহের অভিযোগ তুলে এ রেস্তোরাঁয় তালা মেরে দেওয়া হয়। তালা মেরে দেওয়ার পর থেকে হোটেলের ম্যানেজারসহ অন্যান্য কর্মচারীরা হোটেলের সামনে অবস্থান করছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হবে।

ফেন্সী হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের মালিক সুরুজ মিয়া জানান, আমাদের এখান থেকে কে খানা নেয়। আমাদের এখান থেকে খানা যায় কোন খানে। আমরা কোন খানে খানা দি। আমাদের খানা কোথায় যায়। এ গুলো নিয়ে বিকেল ৫টার দিকে গালাগালি করে হোটেল বন্ধ করে চলে যায় কাদের মির্জা।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের মুখপাত্র মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু বলেন, আমরা কখনো এ হোটেল থেকে খাবার ক্রয় করিনা।

এ বিষয়ে জানতে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ব্যক্তিগত মুঠোফোনে সন্ধ্যা ৭টা ৮মিনিটের দিকে  যোগাযোগ করা হলে তার ব্যক্তিসহকারী ফোন রিসিভ করে জানান, মেয়র এখন কথা বলতে পারবেনা।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুদ্দিন আনোয়ার বলেন, তার কাছে এ ঘটনায় এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। তবে তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন বলে মন্তব্য করেন।

উল্লেখ্য, এর আগে গত (২৭ মার্চ) শনিবার রাত ৯টার দিকে কাদের মির্জার নেতৃত্বে বসুরহাটের আজমিরি হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে রেস্তোরাঁর মালিক মো. জসিম উদ্দিনকে (৪০) বেধড়ক মারধর করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •