মঠবাড়ীয়ার সাফা ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে লাঞ্চিতের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন

1

হুমায়ুন কবির তালুকদার : পিরোজপুর জেলা সংবাদদাতা: পিরোজপুরের দক্ষিনের সবচেয়ে বড় উপজেলা মঠবাড়ীয়ার সাফা ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বিনয় কুমার বলকে জুতোপেটা করার প্রতিবাদে অফিস সহকারী ফরিদা ইয়াছমিন এর গ্রেপ্তার ও চাকুরীচ্যুত করার দাবীতে আজ মঠবাড়ীয়ার মহিউদ্দীন ডিগ্রী কলেজে সমন্মীত শিক্ষক সংগঠনের সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠীত হয়েছে। সম্মিলিত শিক্ষক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দীন ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ জনাব আমিনুল হক এ সময়ে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। তিনি বলেন, সাফা ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বিনয় কুমার বলকে ( উধ্বর্তন কর্ত্তৃপক্ষকে ) অফিস সহকারী ফরিদা ইয়াছমিন লাঞ্চিত করে ফৌজদারী অপরাধ ও প্রতিষ্ঠানিক নিয়ম শৃংখলা ও চাকুরী বিধি লংঘন করেছে । আগামী সোমবারের মধ্যে তাকে গ্রেপ্তার করার জন্য প্রশাসনকে আল্টিমেটাম বেঁধে দেন ,না হলে শিক্ষক সমাজ কঠোর আন্দোলনে নামার কথা ও বলেন ।এ সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন সরকরি হাতেম আলী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব রুহুল আমীন ,মঠবাড়ীয়া সরকারি কলেজের প্রভাষক মোহসেন আলী মান্না, মিরুখালী স্কুল এ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো: আলমগীর খান ডা: রুস্তম আলী কলেজের প্রভাষক মো: মোতালেব হোসেন ,মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি মঠবাড়ীয়ার সাধারণ সম্পাদক মো: নাছির উদ্দীন ,প্রাথমিক শিক্ষকদের পক্ষে প্রধান শিক্ষক সুমন্ত হাওলাদার প্রমুখ।এ সময়ে সকল বক্তরা অভিযুক্ত নারী অফিস সহকারী ফরিদার গ্রেপ্তার ও চাকুরীচ্যুত করার দাবী জানান ।তারা বলেন, ফরিদা শুধু ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বিনয় কুমার বলকেই আঘাত বা মানহানি করেন নি, বাংলার পুরো শিক্ষক সমাজের উপরই আঘাত হেনেছে। উল্লেখ্য গত ১৬ আগস্ট সাফা ডিগ্রী কলেজের অফিস সহকারী ফরিদা ইয়াছমিন কলেজ কক্ষে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বিনয় কমার বলের সাাথে কথার কাটাকাটির এক পর্যায়ে জুতোপিটা করে ।পরে এ ভিডিও ভাইরাল হলে এলাকা ও সমগ্র শিক্ষক সমাজের মধ্যে তোলপাড় শ্ররু হয়।এ দিকে চিকিৎসা শেষে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বাদী হয়ে মঠবাড়ীয়া থানায় একটি ফৌজদারী মামলা দায়ের করেন ও কলেজ কর্ত্তৃপক্ষ পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন ।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •