ছাত্রলীগ নেতা নাজমুল হাসান প্রিন্সের বিরুদ্ধে মামলা,আসামী পলাতক

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের কাউখালীতে নৌ কর্র্মকতার নিকট চাঁদার দাবীতে গত ৯ জুন (বুধবার) জহিরুল ইসলাম (নৌ বাহিনীর বেসামরিক ১ম শ্রেনীর প্রশিক্ষক ও উপ-সহকারী প্রকৌশলী) পক্ষে তার ফুফু নাছিমা বেগম, স্বামী- সরোয়ার ফিটার, গ্রাম- বিজয় নগর, ডাকঘর- বেকুটিয়া ফেরীঘাট, কাউখালী থানায় বাদী হয়ে একটি চাঁদাবাজী মামলা করেন। মামলা রুজু হওয়ার পর থেকে উক্ত ছাত্রলীগ নেতা আত্মগোপনে রয়েছে।মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, বিগত ০৯ জুন বিকাল সাড়ে চার টার দিকে তার নিজের বাড়ির পাশে নানাবাড়ি ফলইবুনিয়া ঘটনাস্থল থেকে হেটে বাড়ীর উদ্দেশ্যে যাওয়ার পথিমধ্যে ঐ ছাত্রলীগ নেতা সহ দুইজন অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসী নিয়া তার পথ গতিরোধ করিয়া ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে, অন্যথায় আজকেই এই এলাকা ছেড়ে চলে যওয়ার হুমকি দেয়। তিনি চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাহাকে এলোপাথী মার-ধর করে এবং তাহার পকেট থাকা ৮ হাজার টাকা, ২০ হাজার ১ টি স্যামসাং মোবাইল (এন্ড্রয়েড) সেট নিয়া যায়। তাহার ডাক চিৎকারে তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় গ্রাম্য চিকিৎসক দিয়া চিকিৎসা করাইয়া কিছুটা সুস্থ হয়ে জীবন বাঁচাতে তাহাকে তাহার কর্মস্থল চট্টগ্রামে পাঠিয়ে দিয়ে এলাকায় গণ্যমান্য মুরব্বিদের সাথে আলাপ করে তার ফুফু কাউখালী থানায় মামলা দায়ের করেণ।এ ব্যাপারে ৫ নং শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিকদার মোঃ দেলোয়ার হোসেন জানান, ছাত্রলীগ নেতা প্রিন্স দলীয় প্রভাব খাটিয়ে এলাকায় সন্ত্রাশী কর্মকান্ড ঘটায়। সে নৌ কর্মকর্তা জহিরুল ইসলামকে মারধর করছে। তার পরিবারের একটি লাইসেন্স প্রাপ্ত বন্দুক আছে সেই বন্দুক দেখিয়ে সাধারণ মানুষদেরকে প্রতিনিয়ত হয়রানী করে।
শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের মেম্বার দুলু খান জানান, উক্ত ছাত্রলীগ নেতা দলীয় প্রভাব বিস্তার করে এলাকায় ত্রাশের রাজত্ব কায়েম করেছে। সে এলাকায় চাঁদাবাজী মারামারি ইত্যাতি সংঘঠিত করে থাকে। এমনকি রিক্সা ওয়ালাকেও ছাড়ে না। তিনি আরো বলেন প্রিন্সের পিতা কয়েজ তালুকদার, খোকন নামের এক ব্যক্তি ও তার দাদা মরহুম শাহাবুদ্দিন তালুকদার,কাঞ্চন নামের এক ব্যক্তিকে খুন করেছে এবং তাদের বিরুদ্ধে কাউখালী থানায় মামলাও আছে এক কথায় তারা খুনি পরিবার।
সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ সিদ্দিক গাজী জানান, নাজমুল হাসান প্রিন্স সে রাজনীতির প্রভাব খাটিয়ে এলাকার মানুষের উপরে অন্যায় অত্যাচার করে।উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এস আই) হিরণ বলেন, নাজমুল হাসান প্রিন্স অত্যন্ত খারপ লোক। সে উপজেলা নির্বাচনের সময় পুলিশকে হয়রানি করেছে।এ বিষয়ে কাউখালী থানার অফিসার ইনচার্জ বনি আমীন জানান, মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে। আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যহত রয়েছে।ছাত্রলীগ নেতা নাজমুল হাসান প্রিন্স এর নিকট কয়েকবার মুঠোফেনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করিলে তাহার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।