হাইব্রিড নেতার কর্মকাণ্ডে বিব্রত তৃনমূল নেতাকর্মীরা

4

কলাপাড়া (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি।। কলাপাড়ার মহিপুরে হাইব্রিড আওয়ামী নেতা মোঃ মঞ্জু মুসুল্লীর বেপরোয়া দৌরাত্মে বিব্রত স্থানীয় তৃণমূল নেতাকর্মীরস। যানা গেছে, মহিপুর ইউনিয়নের বিপিনপুর গ্রামের মৃত আফতার মুসুল্লীর ছেলে মঞ্জু মুসুল্লী। পরিবারের ১১ ভাইয়ের ৮ জন  সবাই  বিএনপির রাজনীতির সাথে সক্রিয় ।পরিবারের দুই ভাই বাংলাদেশ পুলিশের চাকরিরত ছিল এক ভাই অবসরপ্রাপ্ত হয়ে পরিবার সহ ঢাকায় থাকেন। তার ভাই আনোয়ার মুছুল্লি মহিপুর ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি, ছোট ভাই মাহাবুব মুসল্লী মহিপুর ইউনিয়ন যুবদলের সদস্য তার ভাইয়ের ছেলেরা  বিএনপির সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন  পদে রয়েছেন। ২০০৯ সালে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পরে দীর্ঘদিন প্রবাসে থেকে দেশে ফিরে ভোল পাল্টে পরিবারের মধ্যে  একা  বনে যান আওয়ামীলীগ নেতা। পরবর্তীতে স্থানীয় ভাবে নেতাদের তেলবাজি  করে হাতিয়ে নেন ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক ও পরে সভাপতি। পরিবারের ৮ ভাই এখনো বিএনপির বিভিন্ন পদে রয়েছেন।

মহিপুর ইউনিয়ানের আওয়ামী সভাপতি আঃ মালেক আকন তার বিব্রতকর আচরনে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সহ-সভাপতি আবু ছালেহ পাটোয়ারী বলেন, মঞ্জু মুসুল্লী একজন হাইব্রিড আওয়ামীলীগ নেতা, এছাড়াও সংগঠনের একাধিক নেতারা জানান এই হাইব্রিড মঞ্জু মুছুল্লী  দলের ভিতরে প্রবেশ করে শুরু থেকে বিব্রতকর আচরন করে আসছেন। দলের সিনিয়র নেতাদের উপেক্ষা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে কেককাটা অনুষ্ঠানে নিজেই  শুরু করেন কেককাটা।

মহিপুর ইউনিয়নের সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি জানান, সিনিয়ার নেতারদের সাথে বিব্রত কর আচরনের বিষয় জনতে চাইলে উল্টো তাকে হুমকি দেয়। দলের প্রভাব খাটিয়ে মহিপুরে সড়ক ও জনপদের জায়গায় অবৈধভাবে দখল করে ২ টি দোকান ঘড় নির্মান করেন।তার এহেন কর্মকান্ডে বিব্রত স্থানীয় আওয়ামীলীগ।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •