কলাপাড়ায় ১৫ হাজার মানুষ উদযাপন করছেন আগাম ঈদ

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি।।পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে মঙ্গলবার পাঁচ হাজার পরিবারের ১৫ হাজার মানুষ উদযাপন করছেন পবিত্র ঈদুল আযহা। সকাল আটটায় বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কলাপাড়ার ধানখালী ইউপির উত্তর নিশানবাড়িয়া জাহাগিরিয়া শাহ্সূফি মমতাজিয়া দরবার শরীফ জামে মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। নামাজ পরিচালনা করেন ইমাম-হাফেজ আরিফুর রহমান। জাময়াতে সাড়ে তিনশত মুসুল্লি অংশগ্রহন করেন।
এছাড়াও সকাল ৮টা থেকে শুরু করে সকাল ৯টার মধ্যে উপজেলার চালিতাবুনিয়া শাহসুফি মমতাজীয়া দরবার শরীফ জামে মসজিদ, উত্তর লালুয়া মাঝিবাড়ি শাহসুফি মমতাজীয়া দরবার শরীফ জামে মসজিদ, শাহসুফি মমতাজীয়া দরবার শরীফ জামে মসজিদ, টিয়াখালী ইউপি, নাইয়াপট্টি শাহসুফি মমতাজীয়া দরবার শরীফ জামে মসজিদ, কলাপাড়া পৌরসভা, শাফাখালী শাহসুফি মমতাজীয়া দরবার শরীফ জামে মসজিদ, তেগাছিয়া, পাঁচজুনিয়া শাহসুফি মমতাজীয়া দরবার শরীফ জামে মসজিদ, ধানখালী ইউপি, শাহসুফি মমতাজীয়া দরবার শরীফ জামে মসজিদ, চালিতাবুনিয়া, ফুলতলি বাজার শাহসুফি মমতাজীয়া দরবার শরীফ জামে মসজিদ, ধানখালী ইউপি সহ উপজেলার অন্যান্য মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয়ভাবে এরা চট্রগ্রামের এলাহাবাদ সুফিয়া ও চানটুপির অনুসারী হিসেবে পরিচিত। প্রতি বছর সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে আগাম ঈদ পালন করেন এ চান টুপি অনুসারীরা। প্রায় ১০০ বছর ধরে তারা আগাম ঈদ উদযাপন করে আসছে।ধানখালী ইউনিয়নের নিশানবাড়ীয়া,গণ্ডামারি, মরিচবুনিয়া, চালিতাবুনিয়া, ছৈলাবুনিয়া, সেনের হাওড়া, কলাপাড়া পৌরসভার বাদুরতলী, নাইয়াপট্টি, মিঠাগঞ্জ ইউনিয়নের তেগাছিয়া, সাফাখালি, চরপাড়া এবং আজিমদ্দিন গ্রামের প্রায় পাঁচ হাজার পরিবারের পনের হাজার লোক এ তরিকার অনুসারী। নামাজ শেষে পরস্পর কুশল বিনিময় শেষে আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য পশু কোরবানি করেন।

কলাপাড়া নাইয়াপট্টি এলাকার নাঈম মুন্সি জানান, সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে আজ আমরা পবিত্র ঈদুল আজহা পালন করছি। পশু কোরবানি করেছি সারাদিন আনন্দ উপভোগ করবো।

নিশানবাড়িয়া শাহ-সুফি মমতাজিয়া দরবার শরীফের তত্ত্বাবধায়ক নিজাম উদ্দিন বিশ্বাস জানান, চট্টগ্রামের চান্দনাইশ উপজেলার কাঞ্চন নগরের পশ্চিম এলাহাবাদের সিলসিলায়ে আলীয়া চিশতিয়া কাদরিয়া জাহাগিরিয়া তরিকতের অনুসারী তারা। তিনি আরও জানান, বংশ পরম্পরায় তারা একদিকে আগে ঈদ পালন করে থাকেন।