আমতলী হলদিয়া ইউনিয়নে ঘরে ঘরে সর্দি জ্বরের প্রকোপ, করোনা টেস্টে অনীহা

0

আমতলী(বরগুনা)প্রতিনিধি: বরগুনারআমতলী উপজেলা সর্ববৃহত ইউনিয়ন হলদিয়া ইউপির গ্রামগুলোতে অস্বাভাবিক ভাবিকহারে বাড়ছে জ্বর, সর্দি-কাশি । করোনাকালে এসব উপসর্গ দেখা দেওয়ায় গ্রমাঞ্চলে আতঙ্ক বিরাজ করছে। চিকিৎসকরা রোগীদের করোনা পরীক্ষার পরামর্শ দিলেও দু-একজন পরীক্ষার করলেও অধিকাংশ রোগীরা অনিহা প্রকাশ করে বাড়ি চলে যান।উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লে· সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে অনেক রোগী আসেন এদের অধিকাংশ জ্বর, সর্দি-কাশি, গলাব্যথা নিয়ে আসেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লে· সূত্রে জানা যায় হঠাৎ জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে করোনার উপসর্গ থাকলেও কিছুতেই তারা তা মানতে চান না। জ্বরে আক্রান্ত রোগীদের করোনা পরীক্ষার করতে বললেও পরীক্ষায় তারা একেবারেই আগ্রহ দেখাচ্ছেন না। হলদিয়া ইউনিয়নে গত দুতিন দিনে বেশ কয়েজন মারা গেছে তাদের প্রত্যেকেরই করোনা উপসর্গ ছিল।হলদিয়া ইউপির ৫ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. নজরুল মিয়া বলেন, আমাদের বাড়ীর আশেপাশে অন্তত ৮/১০টি বাড়ীতে জ্বরে আক্রান্ত রোগী রয়েছে। তারা ভয়ে বাড়ী থেকে বের হন না। স্থানীয় ওষুধের দোকান থেকে ওষুধ কিনে বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।হলদিয়া ইউনিয়নের স্থানীয়রা জানান , আসাদেও ইউনিয়নের কমিউনিটি ক্লিনিকে ডাক্তার যারা আছে তারা নিয়মিত ক্লিনিকে আসলে সাধারন মানুষের উপকার হত। হলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামান মিন্টু মল্লিক ইউনিয়ন বাসীকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার অনুরোধ জানান।
আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুল মুনয়েম সাদ বলেন, জ্বর, সর্দি-কাশি ও গলাব্যথার প্রকোপ কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে সিজোনাল কারণে এসব রোগের প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে বলে তিনি জানান। কারো সন্দেহ হলে যে কেউ করোনার পরীক্ষা করতে পারে। কিন্তু হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা অধিকাংশ রোগীরা করোনা পরীক্ষা করাতে অনিহা প্রকাশ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •