৪ দফা দাবিতে চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের আমরণ অনশনের ডাক

1

মাহমুদুল হাসান লিমন-তিতুমীর কলেজ প্রতিনিধি:

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার খাতা পুনঃমূল্যায়ন ও ৪ দফা দাবিতে আমরণ অনশনের ডাক দিয়েছে।

কলেজগুলা হলো- ঢাকা কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ, সরকারি বাঙলা কলেজ ও সরকারি তিতুমীর কলেজ।

আগামীকাল ২৯ আগস্ট রবিবার সকালে নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়ে এ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে আন্দোলনকারীরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত করা হয় যে লক্ষ্যে তা পূরন হয়নি,অথচ অধিভুক্তি হওয়ার পরে ঢাকার এই সেরা ৭ টি কলেজের পড়াশুনার মান বৃদ্ধির তো দূরে থাক,নানা অব্যবস্থাপনা, অবহেলা ও তাল-বাহানার শিকার হাজার হাজার শিক্ষার্থী। পরীক্ষা ব্যবস্থাপনা নিয়ে সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগে সাত-কলেজের শিক্ষার্থীরা এছাড়াও পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে ভোগান্তির শেষ নেই।

ভুক্তভুগী শিক্ষার্থীদের অভিযোগ পরীক্ষা নেওয়ার পর এক-থেকে দেড় বছর পর রেজাল্ট পাওয়া যায়। ফলাফল প্রকাশ হলেও একসাথে সকল বিভাগের ফলাফল পাওয়া যায় না, ফলে সেশনজট যেন সাত কলেজের নিত্যকার সঙ্গী। পরীক্ষার খাতা অবমূল্যায়ন, শিক্ষার্থীদের গণহারে ফেল করানো যেন নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে।

অথচ ঢাবি-অধিভুক্ত হওয়ার আগে সারা বাংলাদেশে ফলাফলের দিক দিয়ে প্রথম সারির দিকে থাকতো কলেজগুলো এছাড়াও ফর্ম ফিল আপ করা থেকে প্রতিটা প্রশাসনিক কাজে ভোগান্তির শেষ নেই। এতে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা রীতিমতো বাকরুদ্ধ কবে এই ভোগান্তির শেষ হবে।

নানা অভিযোগে এবার ৪ দফা দাবিতে আন্দোলনের ডাক দিলেন শিক্ষার্থীরা। আগামীকাল ২৯ আগস্ট রোজ রবিবার সকাল ৯টা থেকে শুরু করে সরকারি সাত কলেজের ১৫-১৬ সেশনের ফলাফল বিপর্যয় , ১৬-১৭ রেজাল্ট বৈষম্য, ১৬-১৭ মাস্টার্সের ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে বৈষম্য দূরীকরণের দাবিতে আমারণ অনশনের ডাক দিলেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা।

দাবিগুলোঃ

১/ চতুর্থ বর্ষের অকৃতকার্য খাতাগুলো পুনর্মূল্যায়ন করা হোক প্রয়োজনে সেটা দ্বিতীয় পরীক্ষক দ্বারা মূল্যায়িত হোক । অথবা উক্ত বিষয় বিশেষ পরীক্ষা নেয়া হোক ১০ দিনের মধ্যে।

২/ সাত কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ঢাবির শিক্ষক কতৃক ক্লাস মনিটরিং ও বই লেখা হোক ।
৩/ ছাত্র-ছাত্রীদের যেকোনো ধরনের সমস্যা সমাধানের ব্যবস্থা নিজ নিজ কলেজে রাখা হোক।

৪/ সকল বিভাগের রেজাল্ট একসাথে প্রকাশ করা হোক এবং বাকি বিভাগ গুলোর ফলাফল আগামী ১০ দিনের মধ্যেই প্রাকাশ করা হোক।

এ বিষয়ে ইংরেজি বিভাগের একজন শিক্ষার্থী জানায়,২০১৫-১৬ ফলাফল বিপর্যয়ের জন্য আমরা আগামীকালের আন্দোলনে উপস্থিত হব। সাত কলেজ থেকে ভূক্তভোগী শিক্ষার্থীরা উক্ত আন্দোলনে যোগদান করবে। দাবি আদায় না করে ঘরে ফিরবো না।

তিনি আরো জানায়, সাত কলেজ নানান সমস্যা রয়েছে তার মধ্যে রেজাল্ট বিপর্যয় অন্যতম আমরা আর কোনো কোন অজুহাতে সহ্য করব না। আমাদের দাবি, আমাদেরই আদায় করে নিতে হবে। কারণ আমাদের সাথে এরকম হয়েছে, পরবর্তীতে,জুনিয়রদের সাথে ও এরকম হতে পারে তাই আর যেন এইরকম না হয়। আমরা আন্দোলন সফল করে বাড়ি ফিরে যাবো ইনশাআল্লাহ।

নিউজটি শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •