সাত কলেজের নিজ উদ্যােগে টিকার তালিকা তৈরি, তথ্য চায়নি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

মাহমুদুল হাসান লিমন
সরকারি তিতুমীর কলেজ, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের করোনা টিকা দেয়ার লক্ষ্যে তালিকা সংগ্রহ করছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। প্রায় দুই লক্ষ শিক্ষার্থী এর মধ্যে ৩০ হাজার রয়েছে আবাসিক শিক্ষার্থী টিকা প্রাপ্তিতে বহু নাটকীয়তা শেষে কলেজগুলো শিক্ষার্থীদের নোটিশ দিয়ে নিজ নিজ ওয়েবসাইটে আলাদা ভাবে তথ্য সংগ্রহ করছে এরই মধ্যে কয়েকটি কলেজের তালিকা প্রস্তুত হয়ে গেছে।

তালিকা সংগ্রহের কাজ চললেও শিক্ষার্থীদের দ্রুত টিকা প্রাপ্তি নিয়ে দেখা দিয়েছে সংশয় ৷ কেননা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বা (ইউজিসি) কেউই সাত কলেজের শিক্ষার্থীদের তালিকা চায়নি ৷ নিজ উদ্যোগেই এই তালিকা আগাম প্রস্তুত করছে প্রতিষ্ঠান ৷

অধিভুক্ত কলেজগুলোর প্রতিটি কলেজে আলাদা নোটিস দিয়ে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শিক্ষার্থীদের তথ্য কলেজের ওয়েবসাইটেই প্রবেশ করে এন্ট্রি করতে বলা হয়েছে। এতে কয়েকটি কলেজের শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশনের মেয়াদ শেষ হলেও কয়েকটি এখনও চলমান রয়েছে ৷ এগুলোর মধ্যে ঢাকা কলেজ,ইডেন মহিলা কলেজ শুধু মাত্র আবাসিক শিক্ষার্থীদের তথ্য নিয়ে তালিকা প্রস্তুত করলেও অন্য কলেজ গুলো আবাসিক অনাবাসিক সব শিক্ষার্থীদের তথ্য নিচ্ছে৷ সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এখন পর্যন্ত শুধু মাত্র আবাসিক শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়া হচ্ছে৷

অধিভুক্ত কলেজগুলোর টিকা রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত নোটিশ থেকে জানা যায় ঢাকা কলেজের ও কবি নজরুল সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশনের সময়সীমা ১৭ জুলাই এবং ইডেন মহিলা কলেজ ১৮ জুলাই শেষ হয়েছে, তিতুমীর কলেজ ২৩ জুলাই, সোহরাওয়ার্দী কলেজের শিক্ষার্থীরা কলেজ ওয়েবসাইটে ৩১ জুলাই পর্যন্ত আবেদন করতে পারবে৷ সরকারি বাঙলা কলেজের বিজ্ঞপ্তিতে ১৯ জুলাইয়ের মধ্যে আবাসিক শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন করতে বলা হয়েছে৷

ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী মারুফ তালুকদার বলেন,” অন্য সব বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়া শুরু হয়ে গেছে৷ আমাদের মাত্র তালিকা নেয়া শুরু হয়েছে৷ টিকা কবে পাব তার কোন সঠিক নির্দেশনা নেই৷ টিকা দিতে দেরি হলে ক্যাম্পাস খুলতেও তো দেরি হবে! আমরা এমনিতেই সেশন জটে আছি ৷ দ্রুত টিকা দিয়ে ক্যাম্পাস না খুললে সেশন জট আরও দীর্ঘ হবে৷”

ইডেন কলেজ এর শিক্ষার্থী জেরিন হাসান কলেন, ” সাত কলেজ অন্যান্য সব কিছুর মতই টিকা প্রাপ্তিতেও পেছনে পরে আছে। ইতিমধ্যে সেশনজট এর কারনে বিভ্রান্তিতে আছে শিক্ষার্থীরা। দেরিতে টিকা প্রাপ্তি সেশনজটের আরেকটি বড় কারন হয়ে দাড়াবে তাই দ্রুত টিকা প্রদানের মাধ্যমে সাত কলেজের ভোগান্তি লাঘবের দাবি জানাই।

একই দাবি অন্যান্য শিক্ষার্থীদের তারা বলেন সাত কলেজ সবকিছুতে অবহেলিত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় টিকা প্রাপ্তিতে অগ্রাধিকার পেলেও তালিকায় নাম থাকে না সাত কলেজের। তাছাড়া শুধু আবাসিক শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়া হলে অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের টিকা কবে দিবে?অনাবাসিক শিক্ষার্থীর কি টিকা প্রয়োজন নেই?

সরকারি সোহরাওয়ার্দী কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মোহসিন কবীর বলেন, ” ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে এই বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোন বৈঠক হয়নি৷ আমরা এখনও এই বিষয়ে কোন পত্র পাইনি৷ আমরা নিজ উদ্যোগেই ডাটা সংগ্রহ করছি যাতে তালিকা চাইলেই আমরা দিতে পারি৷ ”

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ ও অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের সমন্বয়ক
(ফোকাল পয়েন্ট) অধ্যাপক আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার বলেন, ” আমরা আনুষ্ঠানিক ভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তালিকা তৈরীর বিষয়ে কোন চিঠি পায়নি ৷ সরকার তালিকা চাইলে যাতে দ্রুত সময়ের মধ্যে তথ্য পাঠানো যায় এজন্য নিজ উদ্যোগে তালিকা তৈরী করছি৷ আমরা আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে আমাদের শিক্ষার্থীরা টিকা পাবে ।